পাতা:আমার বাল্যকথা ও আমার বোম্বাই প্রবাস.pdf/৩২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অামার বোম্বাই প্রবাস २ (t७ এই সভা প্রায় লিশ বৎসর কাল জীবিত ছিল । যদিও ইহার সাপ্তাহিক অধিবেশনে গোপনে কাৰ্য্য নিৰ্ব্বাহ হুইত তথাপি সময়ে সময়ে সভ্যদের উৎসাহ উথলিয়া উঠিয়া নির্দিষ্ট সীমা উল্লঙ্ঘন করিতে দেখা গিয়াছে। একবার তাহদের মধ্যে জন কতক যুবক কেল্লার এক রুটি ওয়ালার দোকানে পাউরুটি কিনির সেই রুটি হস্তে প্রকাখ্য রাজপথ দিয় তাহদের গৃহদ্বারে চলিয়া অসেন । তাহদের সাপ্তাহিক অধিবেশনে দীক্ষা ও তর্ক বিতর্ক ভিন্ন আর বিশেষ কোন অনুষ্ঠান হইত না । কেবল বাৰ্ষিক প্রীতিভোজন এই সভার এক বিশেষ অনুষ্ঠান ছিল । সেই সময়ে মফস্বলেব ভিন্ন ভিন্ন প্রদেশ হইতে পরমহংসদল সমবেত হইয়া জাতি নিৰ্ব্বিশেষে একত্রে পান ভোজন কবিতেন । কিন্তু এইরূপে অধিক দিন যায় নাই—পরমহংস মণ্ডলীর শীঘ্রই মুখস্বপ্ন ভঙ্গ হইল । র্তাহারা বুঝিতে পারিলেন যে হিন্দুধৰ্ম্ম ও জাতিভেদের উচ্ছেদ সাধন সহজ নহে । এক সামান্ত ঘটনা হইতে এই বালির বধ ভাঙ্গিয় গেল। কোন এক ব্যক্তি ( খুব সম্ভব সভ্যদের মধ্যে একজন ) সভার খাতাপত্র হরণ করিয়া লইয়া যায়। তাহাতে সভার যত গুহ কথা-সভ্যদের নাম ধাম, তাহদের জাতিভঙ্গের প্রতিজ্ঞ। যাহা কিছু ভিতরকার কথা সকলি বাহির হইয়া পড়িল । হিন্দুসমাজে মহা গণ্ডগোল বাধিয়া গেল । যতদিন পৰ্য্যন্ত সভার গোপনীয় কথাসকল প্রকাশ হয় নাই, ততদিন হিন্দুসমাজ সন্দেহ করিয়াও তাহীদের কার্য্যে হস্তক্ষেপ করিতে সমর্থ হয় নাই। গুপ্তকথা সকল ফাস হইয়া সকলের চিত্তে ভয়ের সঞ্চার করিয়া দিল। হিন্দুসমাজের কাছে তাহারা বৰ্মাল ধরা পড়িলেন। তাহারা ভয়ে একে একে সরিয়া পড়িলেন –পলাতকের দৃষ্টান্তে যথার্থ বীরের হৃদয়ও দমিয়া গেল। সভা ভগ্ন চূর্ণ হইয়া ধরণীতলে লুষ্ঠিত হইল। * আৰ্য্য-সমাজ প্রার্থনা-সমাজের সহযোগী আৰ্য্য-সমাজের উল্লেখ না করিলে এ অধ্যায় অসম্পূর্ণ থাকিয়৷ যায়। মহাত্মা দয়ানন্দ সরস্বতী এই সমাজের জন্মদাতা । ইনি একজন গুজরাটী ব্রাহ্মণ। দয়ানন্দ সরস্বতীর জন্মভূমি কাঠেওয় ড়। দয়ানন্দের পিতা একজন গোড়া শৈব ছিলেন, আপন পুংকেও শৈবধৰ্ম্মে দীক্ষিত করেন, কিন্তু এই অন্নে তাহার আধ্যাত্মিক ক্ষুধার নিবৃত্তি হয় নাই। র্তাহার ধৰ্ম্ম জিজ্ঞাসা প্রবল ছিল, পৌত্তলিকতার অসারত শীঘ্রই তাহার হৃদয়ঙ্গম হইল। মূৰ্ত্তিপূজার প্রতি কিরূপে র্তাহার বিরাগ জন্মিল তাহার বৃত্তান্ত র্তাহার জীবনীতে যাহা আছে তাহা এই –একদিন শিবরাত্রির জাগরণে তিনি

  • ইন্দু প্রকাশ সপ্তাহিক সংবাদ পত্রে ১৮৬৫ সালে ২রা মার্চ হইতে কতিপয় সংখ্যায় Political Rishi স্বাক্ষরিত প্রবন্ধ হইতে সঙ্কলিত