পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আমিষ ও নিরামিষ আহার । সে বড় বিরক্তিকর। সময়ে সময়ে এই সকল কারণে সহজ কাজ ও বিলক্ষণ কঠিন হইরা উঠে। চাল।—আমাদের রান্নাঘরে রাধিবার জন্য দুই প্রকার চাল আসিয়া থাকে। মোট চাল এবং সরু চাল । দাস দাসী এবং গরীব দুঃখীরা সচরাচর মোট চালের ভাত খায়, এবং সম্পত্তিশালী ব্যক্তিরাই কামিনী আতপ, শব্দখালি প্রভৃতি সরুচালের ভাত খাইয়া থাকেন । প্রায় দেখিতে পাওয়া যায় মোট চালের সঙ্গে চালের কড়া ও গুড়ি মিশান থাকে এবং সরু চালে চূণ মিশান থাকে । পোকা ধরিবে না বলিয়া চালে চুণ মিশাইয়া রাখে । আতপচাল এবং উষ্ণ বা সিদ্ধ চাল —ধান হইতে চাল দুই প্রকারে বাহির করা হইয়া থাকে । ধান রৌদ্রে শুকাইয়া ভাঙ্গিলে যে চাল বাহির হয় তাহাকে আতপ চাল বলে । আর ধান সিজু করিরা শুকাইয়া যে চfল বffহর হয় তাহাকে উষ্ণ অথবা সিদ্ধ চাল বলে । সরু চলি যেমন আতপ এবং উষ্ণ হয়, মোট চালও সেইরূপ আতপ এবং উষ্ণ দুই প্রকার হইয়া থাকে। আতপচtল অপেক্ষাকৃত নরম হয় ; সেই জন্য সহজেই আতপচtল ভাঙ্গিয়৷ যায়। সিদ্ধ চাল শক্ত হয়। সিদ্ধ চাল অপেক্ষা আতপ চাn, সুগন্ধ অধিক । আবার আতপচালের মধ্যে কামিনী আতপ:.gর সুবাস সৰ্ব্বাপেক্ষ অধিক । ভাল কামিনী আতপ চালের ভাত রাধিলে তাহার সেীগন্ধে চারিদিক আমোদিত হইয়া যায়। ফেনস। ভাত, গল। খিচুড়ি রাধিতে হইলে আতপচালের করাই ভাল। অন্য চালের করিলে ভাত আস্ত আস্ত থাকে, তত গলিয়া যার না। আতপ চাল সহজে মিশিয়া যায় । নবীশ্নের সময় খুব ভাল আতপ চাল আনিতে হয়, তবে নবাঞ্জের ভাল গন্ধ