পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৪১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


धिष्ठौष्ठ अक्षां★ । । 専豊 স্বাধী যাইতে পারে। এক সের চালের ভাস্তের জন্তু পাচ সেরী কি ছয় সেরা ছাড়ি আনিতে হইৰে । ৰভু হাড়িতে জল্প চাল চড়াইলে তাত হইত্তে দেরী হইবে, এবং ছোট কঁাড়িতে অপেক্ষীকৃত অধিক চাল চড়াইলে সব ভাত লমান ভাবে ফুটিবে না ; কতক ভাতের 'মাজ থাকিবে অর্থাৎ ভিতর শক্ত থাকিবে ; আর কতক ভাত হয় তো গলিয়া যাইবে। যজিত্তে বহুলোক খাওয়াইবার জন্য একেবারে অনেক গুলী উনানে অনেকগুলা হাড়ি চড়াইয়া ভাত রাধা হইয়া থাকে । ভাত হইয়া গেলে হাড়ি নামাইবার সময় বেড়ীর আবশ্যক হয়। যখন বেড়ী দিয়া হাড়ি ধরিতে হয়, ডান হাত দিয়া বেড়ীর গলা ধরিতে হইবে, আর নিম্ন দিকে বা হাত দিয়া ধরিবে । মাটীর কুঁড়ি পালি অথবা ভাত শুদ্ধ মেজের উপরে বেন না রাখা হয় ; খড়ের বিড়ার উপর যেন বসান হয় । তা ন হইলে ক্টাড়ির তলা খসিয়া যাওয়া সম্ভব । হুঁড়ির মুখ ঢাকিয়া দিবীর জন্য সরার আবশুক । ভাত নাড়িয়া দিবার জন্ত লোহার কিম্বা কাঠের হাতার আবশ্যক হয় । কেহ বা আমি কি বেল প্রভৃতি গাছের ডাল গোল করিয়া কাটিয়া রুলের মত করিয়া চাচিয়া লয় । হাড়ি মুছিবার জন্য এবং গরম ইড়ি ধরিবার জন্য লেতা রাখিতে হয়। হাত মুছিবার জন্য গামছা কি ঝাড়ন অtবশ্ব ক হয় । ভাতের ফেল ঢালিবার জন্য রান্নাঘরে গtমলা রাথ! হর । কেহ কেহ পিত্তলের গামলা, হাতা, পুস্তি, বোগনে। প্রভৃতি ও ব্যবহার করে। পিত্তলের জিনিষ কলাই না করিয়া