পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৪৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


○ァ আমিষ ও নিরামিধ আহিfর । সবগুদ্ধ বিড়ার উপরে ঠেকন দিয়া উপুর করিয়া মাও । তার পরে সব ফেন ঋরিরা গেলে হাড়ি তুলিয়া কাকড়াইয়া লইতে হইবে । তাহা হুইলে সব ভাত সমান হইয়া যাইবে । আর এক রকমে ফেন গালান যায়। হাড়ির মুখে সরা ঢাকা দিয়া দুইটা লেতা দিয়া হাড়ি এবং সরা একত্রে ধরিবে, তারপরে উনানের উপরেই কাজ করির ধfরবে। এ দিকে নীচে একটি BBBS BBBB BBBS BB BBB BBB BBBBB BB পড়িবে | সসপ্যানে (বাটওয়াল বিলাতী হাড়ি) ভাত ষ্ট্ৰাধিলে নিম্নলিখিত প্রকারে ফেল গালিতে হুইবে । হাড়ির মুখে তাহার ঢাকনা চাপ। দিতে হইবে । ডান হাতে একটা লেতা লইয়া সরার মধ্যস্থলে চাপিয়া ধরিতে হুইবে । আর বা হাতে বঁটি ধরিয়া, হাড়ি কাত করিয়া ফেল গালিতে হইবে । ইহাতে বেশ সহজে ফেন গালান স্নায় { আসাম প্রদেশে কেন গালিবার জন্ত পিত্তলের খুব বড় মালসার মত পাত্রের চারিদিকে জাল কাট (ছোট ছোট ছিদ্র) BBBBS BB BBB BBB BB BBB BBB BB BB SBDS দেয় । বেশ সহজে ভাত হইতে কেন ঝরিয়া গিয়া ভাঠ ঝরঝরে হইল্প যার । এই পা একে আসামী ভাষায় “জলিকট খরাহি” বলে। আমাদের উৎসবাদির সময় রাধুলি বামুনেরা দেখিয়াছি একটা মাটীয় গামলার উপরে একটা বড় ঝুড়ি বসার এবং এই ঝুড়িতে ভাত ঢালিয়া দেয়। ঝুড়িতে ভাত ঢালা হইলে পর ছাড়ি নামাইয়া রাথিয় তথনি ঝুড়িট গামলা হইতে উঠাইয়া ফেলে এবং একটা কাপড়ের উপরে ভাত ঢালিয়া রাখে। কারণ ঝুড়িতে