পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


‘8?y আমিষ ও নিরামিষ আহার । এইবারে একছটাক গরম জলে ভাতগুলি কচলাইয়া জলে ভাতে মিশাইয়া ফেল এবং একুটী পাতলা কাপড়ে উহা ছাক । সিটাগুলি ফেলিয়া দাও । ভাতের সিট বর্জিত রসকে ভাতের মও বলে । গুণাগুণ ।—ইহার সহিত সৈন্ধব নুন ও শুঠ মিশ্রিত করিয়া খাইলে ইহা অগ্ন্য দ্বীপক এবং পাচন (ইজমী) হয়। “মণ্ডোগ্রাহী লঘুঃ শীতো দীপনোধাতুসাম্যকৃৎ । জরত্ন স্তপণোবল্যঃ পিত্তশ্লেষ্ম শ্রমাপহঃ ॥”—(ভাঃ প্রঃ) মও ধারক, লঘু শীতল, অগ্ন্যুদীপক, ধাতু সাম্যকারী, জর নাশক, তৃপ্তিজনক, বলকারক, এবং পিত্ত, শ্লেষ্মা ও শ্রমের শান্তি কারক । ১১। ফেন্‌সা ভাত । উপকরণ । —কামিনী আতপ চাল এক পোয়া, জল দেড় সের, জুন এক মুনের চামচ । প্রণালী । —ফেনসা ভাত অর্থে ক্ষেনে ভাতে মিশ্রিত ভাত । ইহার ফেন আর গালিতে হয় না । চালগুলি বাছিয়া ধুইয়া রাখ। হাড়িতে দেড়সের জল চড়াইয়া দাও ; জল ফুটিয়া উঠিলে চালগুলি জলে ছাড়িয়া পাও । ক্রমে ভাত সিদ্ধ হইয়া অসিলে এক মুনের চামচ সুন দাও এবং ক্রমাগত হাত দিয়া ভাত ঘাটিয়া আস্ত চালগু লা ভাঙ্গিয়া ভাঙ্গিয়া দাও । যখন দেখিবে ভাতে আর ফেনে বেশ মিশিয়া থকৃথকে হইয়াছে তথন নামাইবে । জলে চাল দিবার প্রায় মিনিট পয়ত্রিশ পরে এ ভাত নামাইতে হইবে । • গরম গরম ফেনলা ভাত মাথম-মারা ঘি দিয়া এবং নানা