পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৫৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায় । 8ఫి প্রকার ভাতেভাত, পোড়া, এবং ভাজি তরকারী দিয়া খাইতে হয়—তবে ভাল লাগে । ইহা সচরাচর শীতকালে কি বর্ষাকালে সকলে খাইয়া থাকে। আতপ চালেরই ফেন্‌লা ভাত ভাল হয় । যে সকল ভাতেভাত এবং ভাজিতুজি তরকারি দিয়া ফেনসা ভাত খাইতে হয় নিম্নে তাহাদিগের কতকগুলির উল্লেখ করা যাইতেছে। ডাল, আলু, কাটালবিচি, আমড়া, ডেঙ্গোর্ডাটা, জলপাই, সিম, পটল, ইত্যাদি তরকারি ভাতে অথবা সিদ্ধ করিয়া তেল বা খি এবং মুন মাখিয়া ফেনসা ভাতের সঙ্গে থাইতে দেওয়া যায়। চিঙ্গড়িমাছ সিদ্ধ এবং হাসের ডিম সিদ্ধও ঐরূপে মাখিয়া দেওয়া যায়। বিলাতি কুমড়া এবং বিলাতি কুমড়ার ফুল ভাজা, নারিকেল ভাজা, বড়ি ভাজা, ইলিষ প্রভৃতি মাছ ভাজা, তেলকুন মাখা বেগুন পোড়া, ফুলুরি ইত্যাদি ভাজিতুজিও ফেনস ভাতের সঙ্গে থাইতে ভাল লাগে । ভাতেভাত এবং ভাজিভূঞ্জির বিষয় পৃথক পৃথক বিভাগে বিশেষ করিয়া বলা যাইবে । ১২ । মাদ্রাজী ফেন্‌সা ভাত । উপকরণ। —আতপ চাল এক পোয়, জল পাচ পোয়া, মুন দেড় চা চামচ (পোন কাচ্চা), পেঁয়াজ একটা, কাচা লঙ্কা দুইটা, আদা এক গিরা, ঘি এক র্কাচ্চা । প্রণালী।–চালগুলি বাছিয়া ধুইয়া লও। পেয়াজটা কুচি কুচি করিয়া কাট, কাচা লঙ্ক দুটি চিরিয়া রাখ, আর আদ। চাকা চাকা করিয়া বানাও ! একটি হাড়িতে চাল, লঙ্কা, আদা, পেয়াজ, জল এবং মুন সব একত্র রাখিয়া হাড়ির মুখে সরা ঢাকা দিয়া উনানে চড়াইয়া