পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/১৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


*२ আমিষ ও নিরামিষ আহার । একত্র শিলে খুব মিহি করিয়া গুড়াও । আজকাল মশলা পিষিবার কিওঁড়া করিবার নানা যন্ত্র বাহির হইয়াছে তাহাতেও গুড়াইতে পারে । একটি খুব পাতলা টুকরা কাপড়ে এই গুড়। মশলা ছাকিয় লও। ইহাই ফাকি মশলা । এই গুড়া মশলা ও চালের সহিত মিশাইতে হইবে । এইবারে চলে মাখ । আঁখনির জল চড়াইয়াই চালগুলি ধুইবে । খুব পরিষ্কার করিয়া ধুইয়া একটি থালা বা কুলাতে চাল বিছাইয়া দিয়া একবার রৌদ্রে আধঘণ্ট এক ঘণ্টার জন্য দিবে। চালের জল শুকাইয়া চাল গুলা বেশ ঝরঝরে হইয়া থাক । পোলা ওয়ে যে দেড় পোয় ঘি লাগিবে সেই ধি আগে কড়ায় করিয়া গলাইয়া ঢালিয়। রাথ । এখন মন আঁচে এক ছটাক ঘি চড়াও । ড়েল ক্ষীরটা তিন চারি টুকরা করিয়া এই ঘিয়ে ভffজর লও। ছু ঠিন মিনিটেই BB gBBS BBBBS BB DDBB BB BDDB BBBS BBB পাত্রে ছড়াইয়া রাখিয়া দী ৪। ক্ষার ভাজিলে প্রথমে নরম থাকে, হা ওয়া পাইলেক্ট ক্রমে শক্ত হইয়া বায়ু । দুই মাঝারি চামচ ছুধে জাফরান ভিজাইতে দাও । জল গুজিয়ার খোলা ছাড়ান হইলেও, উহার শ্বায়ে পাতলা আঁশের মত খোসা লাগিয়া থাকে । আলগোচে দুই হাতে রগড়াইয়। একটি পাত্রে রাখিয়া দাও, তারপরে একখানি পাখা দিয়া দু একবার বাতাস করিলেই সব খোসা গুল উড়িয়া যাইবে, কিম্বা কুলায় করিয়া ঝাড়িলে ৪ হয় । এখন চলগুলি একটি বাসনে ঢাল । চালমাখা মশলার সব কয়ট লঙ্গ, দারচিনি এবং মুখখোলা ছোট এলাচ ইহাতে দাও, शें