পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায়। ) లీ & . গুলা ছাড়িবে ; কুড়ি বা পাচশ মিনিটেই রস হইয়া যাইবে – উনানের খুব তেজ থাকিলে কুড়ি মিনিটেই হইবে । রসট এক পোয় আন্দাজ থাকিবে। রসটা ফুটিতে আরম্ভ করিলে জাফরান ટૂંકૂ ફ્રાફિક દિલ ! দেড় ছটাক ঘিয়ে দুটা তেজপাত, চুগিরা ডালচিনি, লঙ্গ দশট ও পাচ ছয়ট ছোট এলাচ ছাড়িয়া, হাড়ি আগু েচড়াও । মসলা ফুটফাট করিলে একপেীয়া পোলা ওয়ের চাল ছাড়। পরে এক ছটাক বাদাম কুঁচ ও এক ছটাক কিসমিস ছাড়িয়া, দু এক মিনিট নাড়িয়া চড়িয়া তিন পোয়। জল দাও । জল ফুটিলেই পাঁচ ছয় রতি জাফরান দাও। ভাতের একটু মাজ থাকিতে (চালে জল দিবার প্রায় মিনিট পনের পরে) হাড়ি নামাইয়া ভাতের মধ্যে গৰ্ত্ত কপ্লিবে, গৰ্ত্তের মধ্যে আপেলগুলা (খানিকটা রস সমেত) রাখিয়া, তাহার উপর ভাত চাপা দিবে। সব উপরে অবশিষ্ট সমস্ত রসটা ছড়াইয়া দিয়া, দমে বসাইবে ; দমে বসাইবার কালে ছাই চাপা দিয়া নরম ত্যাচ করিয়া দিবে । দশ পনের মিনিট পরে ভাত ঠিক হইলে নামাইবে । এইরূপ নরম আঁচে আধ ঘণ্টা বা আধ ঘণ্টার কিছু বেশীক্ষণ বসান থাকিলেও ইহাতে ঘি ও চিনির রস থাকাতে ইহার কোন ক্ষতি হইবে না। ৩৬ । কমলা পোলাও ৷ উপকরণ।--কমলানেবু ছয়টা, চিনি দেড় পোয়, জাফরান তিন রতি, জল দেড় পোয় । এই গুলি রসের মসলা । চাল এক পোয়, ঘি দেড় ছটাক, তেজপাত দুটা, *ডালচিনি দু গিরা, লঙ্গ দশটা, ছোট এলাচ পাঁচটা, বাদাম কুঁচা

  • 8