পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অধ্যায়। 》○○ কৃপর শুক্রলা বল্য গুরুঃ পিত্ত্বকফপ্রদ । দুর্জরা বুদ্ধিবিষ্টন্তমলমুত্রকরী স্থত ॥ (ভাবপ্রকাশ ) চাল ও ডাল একত্র মিশ্রিত করিয়া, মুন, আদি ও হিঙ্গের সহিত জলে সিদ্ধ করিলে তাহাকে পণ্ডিতেরা কৃসরা বা খিচুড়ি বলিয়া থাকেন। ইহা ধাতু পুষ্টিকর, বলকর, গুরু, পিশু ও কফ জনক, দুর্জর (সহজে হজম হর না), মল মুত্র কর, ও বুদ্ধিবিষ্টস্তুজনক বলিয়া কথিত হইয়া থাকে । চরকের মতে ইহার গুণ পোলাওয়ের অনুরূপ । “তদ্বন্মাধতিলক্ষীর মুদগসংযোগসাধিতাঃ।” (চরক) মাষকলাই, তিল, দুগ্ধ ও মুগের ডালের সহিত অল্প পাক করিলে তাহারও গু৭ ঐরূপ (পোলাওয়ের অনুরূপ) হয়। পোলাওয়ের গুণাগুণ ৫৭ পৃষ্ঠায় দেখ । ৪০ । ফেন্‌সা খিচুড়ি । উপকরণ।-- সোণামুগের ডাল অধিপোয়, আতপ চাল অধি পোয়া, জল পচি পোয়, মুন আধ তোলা, হলুদ সিকি তোলা, বড় পেঁয়াজ চারি পাচটা, আদা আধ তোলা, ছোট এলাচ দুইটt, লঙ্গ তিন চারিটা, দালচিনি সিকি তোলা, তেজপাত দুখানা, ঘি আধ পোয়, আলু আটটা । প্রণালী।–চাল ও ডাল খুব ভাল করিয়া বাছিয়া ধুইয়া ফেল। এক ছটাক ঘি চড়াইয়। তাছাতে দুখানি তেজপাতা ছাড়িয়া দাও । ধি গরম হইলে দুইটি মুখ থোলা ছোট এলাচ, দুগির দালচিনি, তিন চারিট লঙ্গ ছাড় । দু তিন মিনিটে ঘিয়ের দাগ দেওয়া হইলে, চাল ও ডাল ছাড়িয়া দাও। সাত আট মিনিট কম্বিলে 》《。