পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


& দ্বিতীয় অধ্যায়। ) {} এইবারে, চাল ডালের উপরে, তিন অঙ্গুলি মাপিয়া, নারিকেলের জলীয় দুধ ঢালু তার পরে খাটি চুধটাও ঢালিয়া দাও। মাঝে মাৰে খুন্তি দিয়া নাড়িয়া দাও। ছ একবার হাড়িটা খুরাইয়া দিতে হইবে ; তা না হইলে, চাল এক দিকে সিদ্ধ হইবে অার এক দিকে হয়তো ‘এমনি চলি থাকিবে । যখন জল অনেকটা মরিয়া গিয়াছে দেখিবে অর্থাৎ পাতলা ভাব গিয়া থকথকে হইয়া আসিয়াছে দেখিবে, তখন আর একটি কড়াতে এক র্কাচ্চ ঘিয়ে সাজিরাগুলি ভাজিয়া, সেই ঘি ও জিরা, সব, এই খিচুড়ির উপরে ছড়াইয়া দিবে। এই সময়ে, শাক ভাজাগুলি হাতে করিয়া গুড়াইয়া দাও । আর ভাজ পেয়াজের অৰ্দ্ধেকগুলি এখন আধগুড়াইয়া দাও । এবারে আগুণে ছাই চাপা দিয়া, খুব নরম ; আঁচে হাড়ি বসাইয়া দাও। মিনিট দশের মধ্যে হইয়া যাইবে। খিচুড়ি বেশ ঝরঝরে হইয়া গেলে, বাসনে ঢালিয়া তাহার উপরে, পেঁয়াজভাজা ছড়াইয়া দাও । এই খিচুড়িতে প্রায় আধ ঘণ্টা সময় লামে । ৫৩। তিলে খিচুড়ি । উপকরণ।-তিল আর্ধ ছটাক, মুগের ডাল এক ছটাক, চাল এক পেীয়া, গরম জল সাড়ে তিন পোয়া, আদা এক তোলা, দালচিনি সিকি তোলা, ছোট এলাচ তিনটা, লঙ্গ সাতটা, মুন আধ তোলা, তেজপাত দুইট, জাফরান তিনরতি, ঘি পাচ কাচ্চা, হিং এক রতি। প্রণালী ।-ডালগুলি বাছিয়া তার পরে ডাল চাল একত্র ধুইয়া লs । তিল ধুইয়া ভিজাইয়া রাখ। জাদ বঁটা হইলে > ፃ 始