পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


38e আমিষ ও নিরামিষ আহার । একটি গাঢ় পাত্রে অৰ্দ্ধেক ভাত বিছাইয়া দাও ; ভীতের উপরে ঐ কোপ্তাকারী ঢালিয়া দাও ; তাহার উপরে আবার ভাত ঢাকা দিয়া ছানার মুড়কিগুলি সব উপরে ছড়াইয়া দাও । তৃতীয় অপ্যায়। ভাতে ভ}ত । প্রয়োজনীয় কথা । ভাতেভাত । — যাহা কিছু পোড়া বা সিদ্ধ তরকারী ভাতের সহিত থাইতে দেওয়া হয়, তাহা চলিত কথার “ভাতে ভাতবলিয়া কখিত হয় । বর্ষার দিনে স্বভাবতঃ খিচুড়ি বা ফেন্‌সা ভাত খাইতে বড় ইচ্ছা হয়। ভাতেভাত খিচুড়ি ও ফেন্‌সা ভাতের চিরসঙ্গী। এই বর্ষার সময়ে মৎস্যাদি এবং অন্যান্য তরকারী দুর্লভ হইলে, অথব। BBBB BBB BBB BB BBBBB BBB BS BBBBSkSBB সঙ্গেই দুই চারিট আলু, পটল (বাহা ঘরে আছে) সিদ্ধ ফরিয়া লইলে তাহীর দ্বারাই বেশ স্বচ্ছনে খাওয়া চলিতে পারে । খুব শীতের সময়েও এই প্রকার ভাতেভাত দিয়া গরম গরম ফেলস1 ভাত খিচুড়ি খাইতে বেশ লাগে। আমরা যাহাকে ভাতেভাত বলি হিন্দুস্থানীরা তাহাকে ভৰ্ত্ত ললিয়া থাকে ;–ষদিও ভাতেভাত এবং ভর্তায় কোন কোন স্থলে মাখিবার সামান্য ইতর বিশেষ আছে। শবজী সিঞ্চ । — শবঙ্গী নানা রকমে সিদ্ধ হইয়া থাকে।