পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায় । * 8 o' জালু ডাল প্রভৃতি কতকগুলি তরকারী শুদ্ধ জলে সিদ্ধ করিলে যে আস্বাদ হয়, তাহাপেক্ষা, যখন ভাতের চাল ফুটিতে থাকে তাহার মধ্যে ফেলিয়া সিদ্ধ করিলে, অনেক ভাল আস্বাদ হয়। ভাত অপরিস্কার হইবে বলিয়া, ভাতের সহিত তরকারী সিদ্ধ করিতে ন চাহিলে, ভাতের ফেনেও তরকারী সিদ্ধ করিয়া লইতে পার। অথবা তরকারী সিদ্ধ করিবার জলে, এক মুঠ সাতপ চলি ফেলিয়! দিলেও বেশ হয় । চালটা যখন ফুটিতে থাকিবে, তখনই তরকারী সিদ্ধ কল্পিতে ছাড়িয়া দিবে। যে সকল তরকারী সিদ্ধ হইতে অধিক সময় লাগে, সেই সকল তরকারী সরুচালের ভাতে সিদ্ধ করিতে না দিয়া মোটা চালের ভাতেই সচরাচর দেওয়া হইয়া থাকে নূতন আলু অথবা বেগুণের স্তায় মরম জিনিশ ভাতের মধ্যে ফেলিয়। সিদ্ধ করিতে চাহিলে, সরুচালের ভাতে ছাড়িয়া দেওয়া যায়। ভাতে তরকারী সিদ্ধ করিতে দিলে, ভাত অপরিস্কার হু ওয়ার সম্ভব ; ভাত অপরিস্কার না হয়, এই জন্য তরকারী একটি কাপড়ে বাধিয়া পুটলি করিয়া ভাতের ভিতরে ফেলিয়া দিলেই হইবে ; ইহাতে তরকারী ও সিদ্ধ হইবে, অথচ ভাত অপরিস্কার হইবে না । তরকারী প্রভৃতি সিদ্ধ করিবার কালে, উনানের জ্বলন্ত আঁচ আবখ্যক। তরকারী বেশ ডুবিয়া যায়, এই রকম আণাজে জল দিতে হুইবে । তরকারী সিদ্ধ করিবার জন্য সৰ্ব্বাপেক্ষা মাটীর পাত্র অরি কলাই করা ধাতব পাত্র ব্যবহার করা ভাল । এইরূপ ইড়িতে যে কোন প্রকার তরকারী সিদ্ধ করিতে পারা যায় । লৌহ প্রভৃতি ধাতব পাত্রে (কলাই করা ন হইলে) আম অথবা কষাল তরকারী