পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


* * * আমিষ ও নিরামিষ আহার । গুণাগুণ !—ডিগুিশো রুচিকুম্ভেদী পিত্তশ্লেষ্মাপহ: স্কৃত: । স্বশীতো বাতলে রুক্ষে মুত্রলশ্চাশ্মরীহর । (ভাবপ্রকাশ) ট্যাড়শ রুচিকর, ভেদী, পিত্ত শ্লেষ্মা নাশক, সুশীতল, বাতল, রুক্ষ, মুত্রকর ও পাথরী রোগের বিশেষ শান্তিকারক । ১০৮ ৷ গিমিশ:ক পোড়া । প্রণালী । — গিমি শাক একটা কলাপাতার ভিতরে দিয়া পুড়াইয়া, তার পরে একটি পেয়াজ কুচি ও লুন মাখিয়া থাইলে ভাল। গুণাগুণ । — গিমিশাক পোড়া পুরাতন উদরামর রোগে প্রশস্ত । ১০৯ ৷ গিমিশাক ভাতে । প্রণালী।—গিমিশাক এক ছটাক বাছিয়া ধুইয়া জল দিয়া সিদ্ধ করিতে দাও ; সিদ্ধ হইলে পর, হাত দিয়া চটকাইয়া মাখ ; শাক বেশ নরম হইয়া গেলে, তাহাতে এক কাচ্চ তেল আর সিকি তোলাটাক কুন মাখিয়া খাইতে দী ও । বসন্তকালে গিমিশাক বড় উপকারী । গুণাগুণ ।—গ্রীষ্মমুন্দরকস্তিক্তো রোচন: কফবতনুৎ । লঘুদোষহর; প্রোক্তে বীত সাধারণোমন্তঃ ॥ (রাজবল্লভ গিমাশাক তিক্ত, রুচিকর, কফবাত নাশক, লঘু এবং ত্রিদেt ষের শমতীক রক | ১১ • । কচি চালত ভাতে । উপকরণ - কচি চালত একটি, সরিষা তেল দেড় তোলা,