পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/২৯০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s আমিষ ও নিরামিষ আহার । «د খোসা প্রভৃতি ছুরি দ্বারা ছাড়াইয়া ফেল । এক্ষণে কচু, আদা, লঙ্কা, রসুন, অাম, সরিষা, নারিকেল, এই সকল শিলে খুব মিহি করিয়া পেষ। সব একত্র মিশাইয়া, মুনটুকু মাখিয়া থাও । * কাচা আমের অভাবে নেবুর রস দিয়া মাখিলেও চলে । ওলও এইরূপে পুড়াইয়া মাখিয়া খাইতে বেশ লাগিবে । সচরাচর ওল ও কচু শুধু মুন ও তেল মাখিয়াই থাইয়া থাকে। ভাজাভুজি । প্রয়োজনীয় কথা । উপকরণ।--ভাতে খাবার ভাজিভূজি নানা রকমের হয় এবং নানা প্রণালীতেও করা হইয় থাকে। শাক সবজি প্রভৃতি শাদাশিদ। রকমেও ভাজা যায় আবার নানাবিধ মসলা সংযোগেও ভজি গিয়া থাকে। দেশী ভাজিতুজি দি কিম্বা তেলেই ভাজ হইয়া থাকে ; দেশী রান্নায় সচরাচর চব্বির ব্যবহার নাই। অধিকাংশ জিনিশই ভাসা ঘি কিম্বা ভাসা তেখ্যে অর্থাৎ বেশী পরিমাণ খুব তেলে ভাজিলেই ভাল হর ; অল্প তেলে ভাজিলে চিম্পে হইয়t যায় আর তেল-প্যাচপেচে হইয়া যায়। ভাজি মুচমুচে হইলেই খাইতে ভাল লাগে ; ভাসা তেলে বা ঘিয়ে না ভাজিলেও ভালরকম মুচমুচে হয় না । ভাজিবর দ্রব্য সমস্ত একত্র গাদ করিয়া ঘিয়ে ছাড়িলে ভাল ভাজা হইবে না, জিনিশ খারাপ হইয়। যাইবে, S SBB BBBS BBB BB BB BBBBB BBBBB BBB BBB BBB বসিতে পারি যে, আমাদের নিয়মেক্তি কচু পোড় খাইলে পাঠক আর এইরূপ BBB BB BBBB BBBB BBB BBS BBB BBBBB BBS SS