পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায় । $ እ9 পোয়াটাক জল খাওয়াইতে হইবে ; যতটা পরিবে ছাড়ির মুথ ঢাকিয় রাখিবে ক্রমে জল মরিয়া গিয়া বেগুনগুলি বেশ ফুলিয়৷ ফুলিয়া নরম হইয়া যাইলে, নামাইবে। মিনিট দশ হইতে পনের পর্যন্ত সময় লাগিবে । ১৬৮। বেগুনী আলু ভাজা । উপকরণ।--বেগুন দুইট, আলু তিনটী, পেঁয়াজ তিনট, হলুদ সিকি তোলা, শুক্লা লঙ্কা দুইটী, মুন সিকি তোলা, ধি দেড় ছটাক । প্রণালী –বেগুন দুইটী অধিখানা করিয়া বানাও। তার পরে প্রতি আধখানা বেগুনের পেটের উপরে, লম্বাদিকে এবং আড়ে ছুরি দিয়া দুইটা দুইটা করিয়া চারিট দাগ দাও, তাহ হইলে, সহজেই বেশ তেল ঘি ঢুকিতে পারবে। আলু তিনটার থোসা ছাড়াইরা মোট মোট চাক চাকা করিয়া বানাও । পেঁয়াজ কুচি কুচি করিয়া কাট। লঙ্ক ও হলুদ বাটিয়া রাখ। বেগুন, আলু, ও পেঁয়াজ ধুইয়া হলুদ ও লঙ্কা বঁটা (এক তোলা আদি বঁটা ও দুইটী পেয়াজ বাটাও মাখিতে পারে) এবং মুন মাখ ; তার পরে, সেই পাত্রেই পেঁয়াজ, আলু ও বেগুন আলাদা আলাদা করিয়া বাছিয়া রাখ । একটি কড়ায় ঘি চড়াও। মিনিট দুই পরে, পেয়াজ কুচি ছড়ি ; খুন্তি দিয়া মাড় । সাত আট মিনিট পরে, বেশ ভাজা ৩াঙ্গ হইলে, উঠাইয়। রাধ। এবারে বেগুনগুলি উপুর করিয়া খিয়ে ছাড় ; স্থার পরে খুন্তি দিয়া উন্টাইয়া চিত করিয়া দাও। +ড়tয় একধারে বেগুনগুলাকে ঠেলিয়া দিয়া, আলু ছাড়িবে।