পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩৩১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায়। 3 *t ইছা বড় রুচিকর। আষাঢ় শ্রাবণ মাসের কচি চালত উঠিলে, এই রকম করির ভাজিয়া থাইতে হয় । ভোজনবিধি।-ইহ ফেন্‌দাভাত, শাদা ভাত, খিচুড়ির সহিত খাইতে ভাল লাগিবে । ১৮০ কঁাকরোল ভাজা । উপকরণ --কাকরোল অাধপোয়ী, সরিষা তেল এক ছটাক, মুন দুয়ানি ভর। প্রাণালী —কাকরোলের গায়ের কাট যতটা পার চাচিয়৷ ফেল ; ধুইয়া মুন মাখিয়া রাখ ; মিনিট দশ পরে ইহার জল বাহির হইলে, তবে ভাজিবে । কড়ায় তেল চড়াও ; মিনিট দুই পরে, তেলের ধোঁয়া উঠিলে পর, কাঁকরোল ছাড় ; বেশ লাল মুচমুচে করিয়া ভাজিতে প্রায় মিনিট আট লাগিবে । কাকরোলকে মিঠা করোলাও বলিয়া থাকে। কাকরোল ভাজা অনেকটা উচ্ছে ভাজার মত খাইতে লাগে। ১৮১। ডুমুর ভাজা । উপকরণ।-ডুমুর এক ছটাক, জল দেড় পোয়, তেল আধ ছটাক, মুন আনি ভর। প্রণালী।—যজ্ঞি ডুমুরগুলি অৰ্দ্ধেক বা চারটুকরা করিয়া কাট। দেড় পোয় জল দিয়া সিদ্ধ করিতে চড়াও । মিনিট পনের কুড়ি সিদ্ধ হইলে, ডুমুরগুলিতে একটু মুন মাখিয়া তেলে ছাড় ; পাঁচ মিনিট ভাজিয়া বেশ খট্‌খটে হইলে, নামাইবে। 2窓