পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩৩৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ఇవి: আমিষ ও নিরামিষ আহার । ইহা শীতকালে খাইবার জিনিষ । ১৮৯ । থোড় ভাজা । উপকরণ।—কচি থোড় এক পোয়, তেল এক ছটাক, শুক্ল লঙ্কা একটা, নুন শিকি তোলা, তিন রতি ক্ষার। প্রণালী ।—কচি থোড়ের উপরের খোলা ছাড়াইয়া ওজন করিয়া এক পোয় থোড় লও ; আন্দাজ এক হাত লম্বা একটা থোড় লইলেও হইতে পারে। থোড় কুচি কুচি করিয়া কাটিয়া, ধুইয়া, তাহাতে মুন মাধিয়া রাখ। মিনিট দশ পরে ইহা নিংড়াইয়! যতটা জল বাহির করিয়া ফেলিতে পার কর । কড়ায় তেল চড়াও ; দুই মিনিট পরে একটা লঙ্ক ফোড়ন দাও ; লঙ্কার গাঢ় লালচে রং হইয়া আসিলে থোড় ছাড় ; নাড়িয়া নড়িয়া ভাজ ; মিনিট পাঁচ ভাজা হইলে ক্ষারটুকু দাও, তার পরে আরো তিন মিনিট ভাজিয়া নামাইবে । সৰ্ব্বশুদ্ধ প্রায় অtট নয় মিনিট ভাজিলে তবে বেশ মুচমুচে হইবে। ইহ ঘিভাতের সহিত থাইতে ভাল লাগে । আসামে অঞ্চলে ক্ষার দিয়া খাইয়া থাকে ; ক্ষারটুকু না দিলেও হয় । ১৯০ । কুঁচ পেয়াজ ভাজ বা পেয়াজ ব্রুণ । উপকরণ –পেয়াজ স্বাধ পোয়া, ঘি দেড় ছটাক । প্রণাঙ্গা –পেয়াজের উপরের খোসা ছাড়াইয়। প্রথমে অধিথানা করিয়া কাট, তারপরে লম্ব দিকে পাতলা পাতলা সাইল করিয়া কাট। পেয়াজ গুলা ধুইয়া লও