পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ιη'ο বিষ্ণুর এই ভারতভূমির দিকে বিশেষ দৃষ্টি ছিল । তিনি দক্ষিণে একপদ অগ্রসর হইয়া দেবলোক হইতে ভারতের মৃত্তিকাময় মর্ত্যভূমিতে অবতরণ করিয়াছিলেন। দেবগণের মধ্যে বিষ্ণু ভারতে প্রথম পদনিক্ষেপ করিয়াছিলেন বলিয়াই বিষ্ণুপদ ভারতে চিরদিন সন্মানিত হইয়া আদিতেছে ; তাই ভারতের মৃত্তিক বিষ্ণুপদাক্রান্ত বলিয়া উক্ত হইয়াছে। বিষ্ণু প্রথমে ভারতে অবতরণ করিয়া ভারতে আর্য্য উপনিবেশের পথ উন্মুক্ত করিয়া দিলেন বলিয়াই ঋষির বিষ্ণুর সেই সুকীৰ্ত্তি স্মৃতিপথে জাগরুক রাখবার জন্যই ভারতের মহাপুরুষগণকে বিষ্ণুর অবতার রূপে গণ্য করেন । অর্থাৎ বিষ্ণু যেমন ভাবতে অবতরণ করিয়া ভারতকে ঘোর অন্ধকার হইতে উদ্ধৃত করিয়া জনসমাজের উপযোগী করিয়া তুলিলেন সেইরূপ বিষ্ণুর অবতারেরাও যুগে যুগে ভারতকে অন্ধকার হইতে উদ্ধার করিয়া আলোক প্রদান করেন। বিষ্ণুর অনুবৰ্ত্তী হইয় অনেক অর্য্যে ঋধিরা ভারতে আসিয়া বসবাস আরম্ভ করিয়া দিলেন । ক্রমে ভারতের ব্রহ্মাবৰ্ত্ত, লোকসঙ্কুল জনপদে পরিণত হইল । ঈশ্বর মনের নিয়স্তা। তিনি উপযুক্ত সময়ে উপযুক্ত ভাব প্রদান করেন । বৈদিক ঋষির দেবগণের স্মরণার্থে অগ্নির দ্বারা যজ্ঞ হোমাদি করিতে লাগিলেন। শু। সুতের অরণ্যে সে সময়ে সে সকলের বিশেষ প্রয়োজনীয় তা ছিল । সে সময়ে জনশূন্ত ভারতের অরণ্য প্রদেশে অগ্নির সহায় ভিন্ন বসবাস করিবার কোন উপায় ছিল না । যজ্ঞের নামে তাহাদিগকে নিত্য সমিধভার আহরণ করিতে হইত, ইষ্টাতে মনেক অরণ্যের বৃক্ষণদি ভস্মীভূত হইয়া লোকবাসের উপযোগী হইয়া উঠিতে লাগিল ; ক্ৰমে ঋষির , সেইস্থানে আশ্রম প্রতিষ্ঠা করিতে সমর্থ হইয়াছিলেন । শুদ্ধ ইহাই নহে, অরণ্যের দুষ্টবায়ু, ঘুতাদির সৌরছে এবং অগ্নিৰ সঞ্চালনী শক্তির