পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তৃতীয় অধ্যায় । ૨ (t{t বেশন, শফেদা, শুকুলঙ্কাগুড়ি জল দিয়া গুলিয়া ফেটাইয়া লও। এই গোলাতে মুন টুকু মিশাইরা ফুলকপি রাখ। তেল চড়াও ; তেলের ধোয় উঠিলে পর, গোলামাথা ফুলকপি উঠাইয়া ভাজ । ২১২ । বেশন দিয়া লাল কুমড়া ভাজ। প্রণালী।–লাল কুমড়ার জন্ত ও ফুলকপি ভাজার গোলার স্থায় গোলা গুলিতে হইবে। লাল কুমড়ার খোসা ছাড়াইয়া পাতলা চাকা চাকা করিয়া বানাইতে হইবে। তার পরে গোলাতে ডুবাইয়া ভাজিতে হইবে । ২১৩ । ফুল ভাজ । প্রণালী - বকফুল এবং বাসকফুল এবং কুমড়াফুল ও পূৰ্ব্বোক্ত প্রণালীতে ভাজিলে বেশ খাইতে লাগে। প্রত্যেক ফুলের মধ্যে চিরিয়া দুই খণ্ড করিয়া আলগা ভাবে ভাল করিয়া ধুইয়া লইবে, যেন ইহাতে বালি পোকা আদি কিছু না থাকে। ২১৪ । কাচা কলাই শুটির ফুলুরি। উপকরণ।-ছাড়ান কলাইগুটি অধিপোয়ী, কঁচালঙ্ক তিন চারিট, মুন সিকিঠেf li, ঘি এক ছটাক । প্রণালী।--কলাইগুটি এবং কাঁচালঙ্কা পিষিয় তাহাতে মুন মিশাইয়। ফেটাইয়। লও। কড়া বা তৈয়ে ঘি চড়াও ; দ্বিয়ের ধোয়া বাহির হইলে ফেটান কলাইগুটি হইতে আটট কি দশটী ফুলুরি গড়িয়া ভাজ। তিন চার মিনিটের মধ্যে ভাজা হইয়া ধাইবে ।