পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৩৭৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२१२ আমিষ ও নিরামিষ আহার । কোন কোন ছেচকীতে গোলমরিচ বাট, রাধুনি, পেয়াজ, আদা প্রভৃতি ব্যবহার করা হয়। পাত্র।~~ইহা প্রায় কড়াতেই রাধা হইয়া থাকে । তবে মোচা প্রভৃতি কষ বিশিষ্ট দ্রব্য রাধিতে গেলে হাড়িই ভাল। " ভোজনবিধি।-ছেচকী, ভাজির পরে সাজাইয়া দেওয়া হয় । ইহা ডাল ভাত, ঘি ভাত, খিচুড়ির সহিত থাইতে হয়। এক একটা ছেচকী লুচির সহিত খাইতেও ভাল লাগে । ২৩৪। বিলাতী কুমড়ার ছেচকী । উপকরণ –লাল কুমড়া দেড় পোয়, শুক্লীলঙ্ক একটি, সরিষা দুয়ানিভর, নুন সিকিতোলা, সরিষা তেল এক ছটাক । প্রণালী।–খোসা ছাড়াইয়া লাল কুমড়া ছোট ছোট করিয়া বানাও এবং ধুইয়া রাখ। কড়ায় তেল চড়াও ; লঙ্কা ফোড়ন দাও, তার পরে সরিষা ফোড়ন দা ও ! ফোড়ন চুড়বুড় করিলে কুমড়া ছাড় এবং মুম দী ও । খুন্তি দিয়া নাড়া চড়ি কর । মিনিট দশের ভিতর গুইয়া সাইবে । ২৩৫ পটোল ও কুমড়ার ষ্টেটকী। উপকরণ।-লtল কুমড়া মাধপোয়া, বারটা পটোল, আলু একট, হলুদ অধিতোল, রসুম দুইকোয়, আদা এক তোলা, শুক্লালঙ্কা দুইটি, তেল এক ছটাক, পেয়াজ একটি, তেঁতুল এক কাচী, জল পাচ ছটাক । প্রণালী –কুমড়ার খোলা ছাড়াইয়া ছোট ছোট করিয়া বানাও । আলুকে ছোকার আলুর আকারে ছোট ছোট ডুম ডুমা