পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৪০১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ অধ্যায় । 凌>教 ছাড় । তারপরে রক্ষন ছেচ ছাড়িয়াই পেষা মশলা ছাড় । মশল। বেশ লাল করিয়া দু তিন মিনিট ধরিয়া কস । তার পরে শাক ছাড়। খুন্তি দিয়া শাক উল্টাইয়া পাণ্টাইয়া দাও । কুন এবং কাচ লঙ্ক ছাড়িয়া কড়া ঢাকিয়া রাখ । শাকের জলেই শাক সিদ্ধ হইবে, আর জল দিতে হইবে না। প্রায় মিনিট পাঁচ পরে এই জলটুকু মরিয়া গেলে নামাইয়া রাখিবে । এই শাক নরম নরম থাকিবে। ইহাকে আয় ভাজ ভাজা করিতে হুইবে না। শাকচড়চড়ি একটু ঝাল ঝাল হইলেই মুখরোচক হয় । ভোজন বিধি –লুচি ও ভাত দুয়েরই সঙ্গে খাওয়া চলে। ২৬৫ । লাউশাকের চড়চড়ি । উপকরণ -লাউশাক এক ছটাক, ঝিঙ্গা এক ছটাক (একটা), পটোল এক ছটাক (চারিট), আলু আধ পোয়া (চার পাঁচট), থোড় এক ছটাক (আধ বিঘৎ লম্বা), কুমড়া বড়ি ছয়টি (আধ ছটাক), মুন আধ তোলা, সরিষা বঁটা পোন তোলা, হলুদ বঁটা পোন তোলা, গুরু। লঙ্কা দুইটি (একটি বাটিবার জন্ত রাখিবে, একটি ফোড়নের জন্য), জল দেড় পোয়া, তেল এক ছটাক, তেজপাত দুখানা, পাচফোড়ন সিকি তোলা । প্রণালী।-লাউশাকের দুটা তিনটা ডগা কাটিরা লও। দেড় হাত সমান লম্বা ডাটা লইয়া তাহী তর্জনীর সমান লম্বা ছোট ছোট করিয়া কাটিয়া তাহার খোসা (এশো) ছাড়াইয়া রাখ। আলুর খোসা ছাড়াইয়া ছয়খানা করিয়া বানাও। পটোলের থোস। বাধাইয়া ছাড়াইয় তাহা চারখানা করিয়া কাট। ঝিঙ্গারও বাধাইয়া খোসা ছাড়াইয় বার চৌদ্ধ টুকরা করিয়া কাট। থোড়ের ধেtল ছাড়াইয়। চাকা চাকা কাটিয়া সেই চাকা গুলিকে আবার