পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৪০৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ অধ্যায়। ළු ( A মিনিট দশ বার পরে তরকারী সব জল টানিয়া লইলে মামা ইবে । g এক ছটাক তেল চড়াও । তেলে পাচফোঁড়ন, লঙ্কাফোড়ন এবং দুইখানা তেজপাতা ছাড় । ফোড়নের বেশ গন্ধ বাহির হইলে তরকারী ছাড়িবে। এক ছটাক জলে হলুদ বাটাটুকু গুলিয়া তরকারীতে ঢালিয়া দাও । সুনটুকু দাও। এই জল মারিয়৷ তরকারাটাকে তেলের উপরে ভাজা ভাজ কর । নামাইয়া আদি ছেচ চূড়াইয়। মিশাইয়া লও। কাচা আমের সময় একটি কাচা আমের সহিত আদি ষ্টুেচিয়া দিলে বেশ হয় । ভোজন বিধি –ইহা ভাত, লুচি দুয়েতেই খাওয়া চলে । ২৭৩ । তেওড়া শাকের চড়চড়ি । উপকরণ।-আলু চার্টি, তেওড়াশাক এক ছটাক, থোড় এক ছটাক, কুমড়া বড়ি চারিট, শিম ছয়টা, সরিষা আধ তোল, শুক্ল লঙ্কা দুইট, হলুদ মিকি তোলা, তেল এক ছটাক, জল প্রায় পাচ ছটাক, মুন প্রায় আধ তোলা, পাচফোড়ন দুয়ানি ভর । প্রণালী।-আলুর খোসা ছাড়াইয়া ছয় টুকরা করিয়া বানাও। থোড়ের খোলা ছাড়াইয়া চাকা করিয়া বানাইয়া, প্রতি চাকা আবার চার টুকরা করিয়া বানাও। শিমগুলির বেঁটা ছাড়াইয়। ছ তিন টুকরা করিয়া বানাও। শাকগুলি বাছিয়া রাখ। সব তরকারী ভাল করিয়া ধুইয়া লওঁ । সরিষা, লঙ্ক ও হলুদ শিলে পিষিয়া রাখ । আধ ছটাক তেল চড়াও । তেলের ধোয়া উঠিলে বড়িগুলি কর্সিয়া উঠাও । বড়িগুলি উঠাইয়া বাকী তেলে শাক ছাড়া