পাতা:আমিষ ও নিরামিষ আহার প্রথম খণ্ড.djvu/৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


• leه হুসম্পন্ন হইত। তাই অগ্নির আরেকটা প্রাচীন নাম গৃহ। cशांछिन বলেন, “গৃহাঃ পত্নী গৃহ এযে অগ্নির্ভবতীত্তি’ “পত্নীকে গৃহ এবং এই অগ্নিকে গৃহ বলা যায়।” গৃহ্য শবের বুৎপত্তি গৃহায় হিতঃ।। ঋগ্বেদের প্রথম স্বক্তটাতে কেমন সরল প্রাণে বলিতেছেন,–‘সচস্ব নঃ স্বস্তয়ে’-হে অগ্নি ! মঙ্গলার্থে আমাদিগের নিকট সমবেত হও । পিতৃগণ । পূৰ্ব্বে অগ্নির বিষয় বিস্তৃতভাবে আলোচনা করিয়া আসিলাম এক্ষণে সেই স্থত্রে পিতৃগণসম্বন্ধে আলোচনা না করিলে অগ্নিসম্পৰ্কীয় ইতিহাস অসম্পূর্ণ থাকিয়া যাইবে । পিতৃগণের সহিত অগ্নির ঘনিষ্ঠ সম্বন্ধ । প্রাচীন ভারতের ইতিহাসে দেব, ঋষি ও পিতৃভাবের তিনটী স্তর পরিলক্ষিত হয় । এই তিনটী স্তরে শুদ্ধ ভারতের ইতিহাস কেন ভারতের সঙ্গে সঙ্গে সমগ্র জগতের ইতিহাসও অনেক পরিমাণে গঠিত । প্রকৃতপক্ষে মানব ইতিহাসের প্রথমে দেবযুগ, আপনার স্থানে আহবান করে ; যেমন স, জ, ছ. ইহার পরস্পরের স্থানে পরস্পরকে আসন দিয়া থাকে । এই কারণে সপ্তাহ’ ‘সপ্তাহ’ হইয়াছে, সংস্কৃত * সাম’ শব্দ জেনা ভাষায় ‘হোম হইয়াছে এবং এই একই কারণে সংস্কুত SBBBS BB BBBB BBB SBBBS BBB BBB BBS BB BBBB BBS অীকার প্রাপ্ত হইয়াছে। এই প্রমাণে জেন্দ শব্দটা "সিন্ধু’ (হিন্দু) শব্দ হইতে উদ্ভূত বলিয়াই বোধ হয়। একদিকে সিন্ধু শব্দ হইতে যেমন হিন্দু উৎপন্ন হইয়াছে, সেইরূপ অন্যত্র জেন্দ আকার প্রাপ্ত হইয়া থাকিবে ।

  • &