পাতা:আমেরিকার নিগ্রো - রামনাথ বিশ্বাস.pdf/৮৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জুফ্রে কোনরূপ কাজ করে না তাদেরই কামরিপু প্রবল। কেরাণীর বােন রাজা জর্জের চেয়েও সুখী। তার চারটা নিগ্রো চাকর আছে। যখন যা ইচ্ছা তাদের দ্বারা করায়। এর পরেও আমার প্রতি কড়া দৃষ্টি রাখে। যাকগে এসব কথা, আমার জন্য কিছু করতে হবে নতুবা সত্বরই শ্বেতকায় যুবকরা আমাকে মেরে ফেলবে। গত পরশুও জন নামে একটা যুবক আমাকে শাসিয়ে গেছে। সে বলছিল, যদি স্থান ত্যাগ না করি তবে সত্বরই লিঞ্চ করবে। সেদিন আত্রেয়ীকে লিঞ্চ করা হয়ে গেছে। শুনতে পাওয়া যায় নূতন মজুর পার্টি করছিল এবং সেই মজুর পার্টির সংগে নাকি রুশিয়ার সম্পর্ক ছিল। সি, আই, ও নামক মজুর পাটি নাকি আমাদের দেশের ধনীদের পােষ মেনেছে। অনেকে বলছে, আমিও আত্রেয়ীর সহকারী। বেচারা আত্রেয়ীকে কি নির্দয় ভাবে হত্যা করেছিল। সে দৃশ্য কখনও ভুলতে পারব না। প্রথমতঃই তিনটা মাতাল আত্রেয়ীকে আক্রমণ করার জন্য এগিয়ে যায়। আত্রেয়ী তখন কার্পাস গাছের গােড়ার মাটি ভেঙ্গে দিচ্ছিল। মাটি শক্ত ছিল না সেজন্য খালি হাতেই কাজ করছিল। কার্পাস গাছকে আত্রেয়ী ভালবাসত। প্রাণ দিয়ে খাটত। মন দিয়ে যখন আত্রেয়ী কাজ করছিল তখন তিনটা মাতাল এক সংগে আত্রেয়ীর ঘাড়ের উপর পড়ে। এক ঝাঁকানিতে আত্রেয়ী তিনটা শ্বেতকায়কে মাটিতে ফেলে দেয়। হঠাৎ পেছন হতে অন্য আর একজন লােক আত্রেয়ীর ডান পায়ে গুলী করে। আত্রেয়ী চীৎকার করে যখন বসে পড়েছিল তখন তিনটা শেতকায় পশু আত্রেয়ীকে আক্রমণ করেই তার চোখে চাকু বসিয়ে দেয়। আত্রেয়ী অন্ধ হয়ে যায়। সে প্রাণ নিয়ে পালাতে থাকে। কিন্তু সে জানত না অথবা হয়ত ভুলে গিয়েছিল অন্ধত্বের কথা। বেশ দূর যেতে পারেনি আত্রেয়ী।