পাতা:আরোগ্য - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৫৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


খেয়ে দেয়ে শুতে যাওয়ার আগে তার দালানের ঘরে এসে লাফাতে থাকে : এইটুকু ভেঙ্গে ভেঙ্গে মাছ দিল কেন ? দাদার মাছ দাদাই বুঝি একলা খাবে ? কালী বলে মাসী আদেক মাছ খেয়েছে। আমি চোখে দেখেছি । বল্লে কি জান ?-বলিস যদি মেরে ফেলব ! মিনু বলে যায়, মায়ামাসী তার পর যে কি কাণ্ড সুরু করল যদি দেখতে দাদা ! হাসে কঁদে দেয়ালে মাথা ঠোকে আর বলে যে বিড়ালে মাছ খেয়ে গেল, তার কি দোষ ? দৃশ্যটা কল্পনা করবার চেষ্টা করতে করতে কেশব বলে, সত্যি কথাই তো ? বিড়াল মাছ খেয়ে গেলে মায়া কি করবে ? মিনু মুচকে হাসে ।

বিড়াল মাছ খায় । মানুষ সেটা টেরও পায় । বিড়াল মাছ খেলে কি কেউ হেসে কেঁদে ঢং করে মাথা কপাল কোটো ? বাচ্চারা কি বিড়াল পোষে না, বিড়াল চেনে না ? বিড়াল মাছ খেলে তারা বলে নাকি যে মায়ামাসী মাছ খেয়েছে ? কালী নিজের চোখে দেখেছে বলেই বলছে ।
তাই নাকি ।
তাও ভাত দিয়ে খায় নি। ভাত রাধেনি। তখনো । সকালে খাওয়ার জন্য মুড়ি কেনা ছিল । মাছ রোধে মুড়ি দিয়ে মাছের ঝোল খেয়ে মায়ামাসী বিড়ালকে দায়ী করেছে।

খিল খিল করে হেসে ওঠে। মিনু । cथcभ७ शांश झूठेi९ । কেশবের চোখ মুখ দেখে সে মাথা হেঁট করে লেপায় লেপায় Q R