পাতা:আরোগ্য - মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়.pdf/১৮১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অনিমেষের গাড়ী তার বাড়ীতে পৌছে দিয়ে কেশব যায় বীরেশের বাড়ী। বীরেশ রেগেই ছিল। কেশব গিয়ে পৌঁছতেই সে ধমক দিয়ে বলে, তুমি তো আচ্ছ লোক ! বলা নেই কওয়া নেই কামাই করে বসলে ? কেশব বলে, আজ্ঞে অসুখ করেছিল । বীরেশ আরও রেগে বলে, অসুখ করেছিল ! এরকম কামাই করলে তোমায় আমি রাখব না । কেশব মুখ তুলে কড়া সুরে বলে, সে আপনার খুসি। রাখা না রাখার মালিক আপনি ৷ রাখতে না চাইলে বিদায় দেবেন। কিন্তু এরকম ধমক দিয়ে কথা কইবেন না । বীরেশ তার মুখের দিকে চেয়ে চুপ করে যায়। রাগ চাপিতে তাকে যে নিজের সঙ্গে রীতিমত লড়াই করতে হচ্ছে এটা স্পষ্টই বোঝা যায় । নতুন গাড়ী কিনেছে, এখনো নিজে চালাতে সাহস পায় না । কেশব বুঝতে পারে, সেটাও তার সংযমের একটা কারণ। চাকরী L MggLLBDB gBBDBB DDB SLOBB SDLLGJ DBJBYY BBB SS S SJJD SKLLBBSS জন লোক পাওয়া আগে তাকে বীরেশ জবাব দেবে না। তার অসহ বেয়াদবি সহ করে যাবে আরেক জন ড্রাহ ভারী পাওয়া। পৰ্য্যন্ত-অৰ্থাৎ একদিন কি দু'দিন তার চাকরীর মেয়াদ । অন্য লোক পেলেই তাকে তাড়াবে, বাকি মাইনেটা দিতে গোলমাল গড়িমসি করে গায়ের ঝাল। ঝাড়বার চেষ্টা করবে । বীরেশের গায়ের জবালা এখনকার মত চেপে যাবার মতলব আঁচ করে কেশব মনে মনে একটু হাসে । বোধ হয় দশ মিনিটও লাগে না । আরোগ্য- ১২