পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৪১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


esi, soro গিরীশচন্দ্ৰ ঘোষ । voዓ፭ፅ হয়েণ এবং ১৮৬২ খৃষ্টাব্দের ৬ই মে তারিখে ‘বেঙ্গলী’ পত্রের প্রতিষ্ঠা করেন। এই কাৰ্য্যে বেচারাম চট্টোপাধ্যায় ও উত্তরকালে ডবলিউ, সি, বোনাজি নামে সুপরিচিত উমেশচন্দ্ৰ বন্দ্যোপাধ্যায় তাহার সহকারী ছিলেন। প্রধানতঃ গিরীশচন্দ্রের সাহায্যে বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয় একটি বৃত্তি লাভ করিয়া বিলাতে গমন করেন। তখন হইতে র্তাহার উন্নতির সূত্রপাত। বন্দ্যোপাধ্যায় মহাশয় একবার আমাদের নিকট গিরীশচন্দ্রের নিকট ইংরাজী শিক্ষাবিষয়ে তাহার ঋণের কথা বলিয়াছিলেন। গিরীশচন্দ্ৰ যখন বেলুড়ে গমন করেন তখনও ‘বেঙ্গলী’ মুদ্রাযন্ত্র কলিকাতায় ছিল। কায্যের সুবিধার জন্য পরে—১৮৬৬ খৃষ্টাব্দে-মুদ্রাঘন্ত্র বেলুড়ে স্থানান্তরিত করা হয়। গিরীশচন্দ্রের মৃত্যুর পর বেচারামবাবু রাজকৃষ্ণ মুখোপাধ্যায়, চন্দ্ৰনাথ বসু, তারা প্ৰসাদ চট্টোপাধ্যায় প্রভৃতির সাহায্যে কিছু দিন ‘বেঙ্গলী” চালাইয়া শেষে ১৮৭৮ খৃষ্টাব্দে উহা ‘বেঙ্গলীর’ বৰ্ত্তমান সত্ত্বাধিকারী শ্ৰীযুক্ত সুরেন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিকট বিক্রয় করেন । ১৮৬৯ খৃষ্টাব্দে ২০শে সেপ্টেম্বর সোমবার বেলুড়ে জ্বরবিকারে গিরীশচন্দ্রের মৃত্যু হয়। তখন র্তাহার বয়স ৪০ বৎসর মাত্র। গিরীশচন্দ্রের মৃত্যুর পর তঁহার বন্ধু ও গুণাঙ্গুরক্ত ব্যক্তিরা টাউন হলে সভা করিয়া তাহার স্মৃতিরক্ষার প্রস্তাব করেন । কলিকাতায় হিন্দুসমাজের তৎকালীন নেতা রাজা কালীকৃষ্ণ দেব সে সভার সভাপতি হইয়াছিলেন। সংগৃহীত অর্থ তাহার প্রথম শিক্ষালয় ওরিয়েণ্টাল সেমিনারীতে প্রদত্ত হয়। ঐ অর্থের সুদ হইতে দ্বিতীয় শ্রেণীর সৰ্ব্বোৎকৃষ্ট ছাত্রকে এক বৎসর মাসিক &\ টাকা বৃত্তি দেওয়া হয়। গিরীশচন্দ্রের স্মৃতি-ভাণ্ডারে আশানুরূপ। অর্থ সংগৃহীত হইতেছে না দেখিয়া ১৮৭০ খৃষ্টাব্দে কৰ্ণেল অসবোর্ণ 'বেঙ্গলী’ পত্রে এক পত্ৰ প্ৰকাশ করেন। তিনি বলেন, র্যাহারা বলিয়া থাকেনপ্রাচ্য দেশবাসীরা বাকৃপটু। কিন্তু কাৰ্য্যবিষয়ে তৎপর নহেন। এই ব্যাপারে তঁহাদের মতই সমৰ্থিত হইতেছে। ইহা বাঙ্গাণীর পক্ষে শ্লাঘার কথা নহে। কৰ্ণেল স্বয়ং ভাণ্ডারে ২০০১ টাকা দিয়া বলিয়াছিলেন, গিরীশচন্দ্রের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়গণ ব্যতীত আর কেহই গিরীশের মৃত্যুতে র্তাহার মত দুঃখিত নহেন। কৰ্ণেল ম্যালিসন উত্তরপাড়া সাহিত্য সভায় বলিয়াছিলেন, তিনি ইটালী, জাৰ্ম্মণী প্রভৃতি পৃথিবীর নানাদেশ পৰ্য্যটন করিয়াছেন ; কিন্তু কোথায় গিরীশচন্দ্রের অপেক্ষা অধিক স্বাধীনচেতা ও