পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৪৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8oo अर्थव6 । sर्थ वर्ष-४ब ज९था। उन>ाiट-८ना>= 1 可环可颈C可?国|密 উর্বর ক্ষেত্রে আজি যে অন্ধুরোদগম হইয়াছে, কালে যে তাহ প্ৰকাণ্ড মহীরুহে পরিণত হইবে, সে বিষয়ে সন্দেহের কোন কারণই দেখা যায় না। শ্ৰীযুক্ত ব্ৰজেন্দ্ৰনাথ বন্দ্যোপাধ্যায় ‘বাঙ্গলার বেগমে’- তাহার প্রথম গ্ৰন্থখানিতে-যে কৃতিত্বের পরিচয় দিয়াছেন, যেরূপ অনুসন্ধিৎসা দেখাইয়াছেন, সেরূপ কৃতিত্ব ও অনুসন্ধিৎসা যদি তিনি বজায় রাখিতে পারেন, তবে তিনি যে কালে বঙ্গীয় পাঠকগণের একান্ত প্রতিভাজন হইবেন, মুষ্টিমেয় ঐতিহাসিকগণের মধ্যে যে তিনি গৌরবান্বিত হইবেন, তাহ অনায়াসে বলা যাইতে of ‘বাঙ্গলার বেগম' ছোট বই-৬৭ পৃষ্ঠায় শেষ । কিন্তু ছোট হইলেও ইহাতে অনেক নূতন জিনিষ আছে—অনেক শিখিবার কথা আছে। বিশেযতঃ ‘বাঙ্গলার বেগম’ পড়িয়া আমাদের একটি কথা স্বতঃই হৃদয়পটে উদ্রিাক্ত হয়। এ পৰ্য্যন্ত আমাদের দেশের ইতিহাসের এই দিকটি বড় কেহ নাড়েন চাড়েন নাই। অন্যান্য সভ্য দেশের ইতিহাস আলোচনা করিলে দেখিতে পাওয়া যায় যে, সেই সেই দেশীয় রাণীদিগের সম্বন্ধে প্ৰকাণ্ড প্ৰকাণ্ড পুস্তক লিখিত হইয়াছে। অবশ্য আমি ইংলণ্ডের এলিজাবেথ বা ভিক্টোরিয়ার কথা ধরিতেছি না। এই দুই গরীয়সী সম্রাজ্ঞীর ন্যায় খুব কম সম্রাজ্ঞীই জন্মগ্ৰহণ করিয়াছেন এবং তজ্জন্য তঁহাদের সম্বন্ধে বৃহৎ বৃহৎ “ভলুম” প্ৰকাশে কিছুই বিশেষত্ব নাই। কিন্তু ইংলণ্ডের অন্য সকল রাণীর কথাই ধরুন। সিডনী উইলমট নামক পাশ্চাত্য লেখক ইংলণ্ডীয় কতকগুলি রাণীর সম্বন্ধে দুইখানি সুবৃহৎ পুস্তক লিখিয়াছেন, ছোটখাটো বহির ত কথাই নাই। উইলমট যে দুইখানি পুস্তক লিখিয়াছেন,তাহাতে যে কি পরিমাণ ব্যয় পড়িয়াছে, তাহার নিৰ্দ্ধারণ করাই আমাদের ন্যায় (বঙ্গীয় লেখক বা পাঠকগণের ) ব্যক্তির পক্ষে দুঃসাধ্য। সে ভাবে আমাদের দেশে বহি লিখার কল্পনাও করা যায় না। সে যাহা হউক, এ দিক্‌টা কেহ বিশেষ নাড়াচাড়া করেন নাই ; সুতরাং LLLLSSSSSLLLLSLLSSSLLSLLLLLSLLLLLSLSSLLSLSLSL S BDBB DBDSSiDB BzYD DBDBLEDDB DBBDKKSS DDDD S BDBDBS