পাতা:আর্য্যাবর্ত্ত (চতুর্থ বর্ষ).pdf/৫০৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ቆ" ያ•ቖ .ፃ" ,- .ች • `ኛ• • ̇.. ! 靼皋 ¥TMዮ!‛ - *ニ* יל :: - as O . . . ፮እያ ! "• “ in م . ኃ••- +” - E F 聊 圆 ومة и . is . . '. I من الة * ... :፥ r . и и a " . . . . . த 寰歌*. ... ... . . . . . . . . - - نتی == ኳኛታ*፰"; - == - = . . . . " " . . . . 3ሌ; و " يعد N မြို့ရွိ 兹尊 嫁。空, 4:1ざ " : r :ሤmጀጳ{፰ኻmያ ጀዃቖ....‛ ፡ ̧፣ ;

سه نخ- ::م:تان، r4

D., a で、r: 。リー・* 。 SeeSeSeeSe SASeSiiSezeSeSA SS SS SSseSe S S AAAAA qqS yeZiZBSED DD uLDDB BDDD মিবুকে స్టోg मू 晦 . .. " 9) . . . . . ... '" . আরাম শয়নে, মাগো, তখনো ঘুমাবে ভুমি, জগৎ ঘুমায়ে রবে সুখে। নিবিড়-তিমির-ভরা কানন-আঁচল হ’তে মিষ্ট স্নিগ্ধ সাঝের বাতাস দোলায়ে যবের শীষ, মৰ্ম্মরিয়া শরবনে নাচাইবে যবে ‘নেবুঘাস’। ‘ · পাণ্ডুর চাদিমতলে যখন কুসুমপুঞ্জ ধীরে ধীরে উঠবে হাসিয়া, । তুমি আর, মা আমার, ধূসর প্রান্তরে মোরে দেখিবে না বেড়াতে ভাসিয়া। তমাল তরুর ঐ শীতল ছায়ায়, মা গো, রচে’ দিও সমাধি আমার, অবসর-মত আসি’ দেখো সে সমাধি যেথা ঘুমাইবে তনয়া তোমার, ভুলিব না, ভুলিব না, জননী, তোমারে আমি-অনুভবে বুঝিব শিহরি’ আমার শিয়রে তাৰ কোমল চরণ-পাত ফুল্প শস্প-গালিচা-উপরি। ছিলাম উদাম, মা গো, দিয়াছি কতই ক্লেশ। কত দিন অভিমানে, রাগে, ক্ষমা করি’ সব আজ, জননী, চুম্বন দাও একবার মরিবার আগে ; না, না-ওকি,কেঁদে না, মাঠকেঁদ না, হৃদয় বঁাখো,বিষাদ আসে না যেন ছেয়ে । শুকায়ে যেও না শোকে, জননী করুণাময়ী, রূয়েছে ত আর তব মেয়ে। খারি। যদি আলিব, মা, আবার আসিব ফিরে ত্যাগ করি’ বিরাম-শয়ন, দেখিতে পাবে না। তুমি, আমি ও মুখের পানে চেয়ে র’ক তুষিত-নয়ন ; না হয় কহিতে কথা নাই পারিলাম, তবু, শুনিব যা’ কিছু তুমি কহ, হয়ত ভাৰিবে তুমি, আছি কোথা কতদূরে-আমি রব কাছে অহরহঃ। বিদায়, বিদায়, মা গো, যখন বলিব আমি-“চিরতরে তা’ হ’লে বিদায়” । তখন দেখিতে পা'কে ধরাধরি করি*সবে आन्द्र বাহিরে লয়ে যায়। “পাঙ্ক যেন নাহি আসে আমার সমাধিপাশে যতদিন না গজায় ঘাস, . হবে, মা, আমার চেয়ে “পাঙ্গ’ তৰ ভাল মেয়ে, দেখো মোর মিছে না। এ sবল ক্লারে। গোলাঘরে মেৰেীয় রহিল পড়ি’, বাগানের যন্ত্রপাতি নানা ; ‘সন্ধতারে নিতে দিও; তু হারেই দিয়া গেম্বু ; আমি আর কিছুই চাহি না ; তবে এক কথা, যেন দেখে, মা, সে প্রতিদিন আত্মার গোলাপ-ঝাড়টিকে, আনে রোগেছি ষা’রে রাহিত্ন-জালালা-ধারে, টগর গাছের চারিদিকে।