পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/১০৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

-যশোবন্ত-মহিষী | || ( আমরা এই কল্পিত নাম ব্যবহার করিলাম। ) ( ) ) রা: রাজসিংহের সহিত মোগল সম্রাট ঔরঙ্গজেবের ঘোরO তর যুদ্ধ ঘটিবার আরও একটি কারণ ছিলেন,-মারবার রাজ যশোবন্ত সিংহের বিধবা পত্নী--রাণী বিন্দুমতী । ইনি মিবারের রাণাবংশীয়া কন্যা। রাণবংশের মহত্ত্ব ও তেজস্বিতা পূর্ণভাবে ইহার হৃদয়ে বর্ত্তমান ছিল। যশোবন্তসিংহ প্রথম বয়স ১ হইতেই ঔরঙ্গজেবের বিশেষ হিতৈষী বন্ধু ছিলেন। সম্রাট সাহজাহানের, দারা, সুজা, ঔরঙ্গজেব ও মুরাদ এই চারি পুত্র ছিল । পৃথিবীর প্রায় সকল রুণজ্যেই এইরূপ নিয়ম আছে, যে, রাজার মৃত্যুর পর তঁহার জ্যেষ্ঠপুত্র রাজা হন । কিন্তু মোগল বাদসােহদের আমলে এমন কোন বঁাধাবাধি নিয়ম ছিল না। কাজেই কোন সম্রাটের মৃত্যু হইলেই তাহার পুত্রদের মধ্যে তুমুল যুদ্ধ উপস্থিত হইত। যে ভ্রাতা অন্য সকলকে “পরাভূত করিয়া সিংহাসন নিতে পারিতেন, তিনিই সম্রাট হইতেন। সম্রাই সাহজাহানের পুত্রগণ পিতার মৃত্যুকাল পর্য্যন্তও অপেক্ষা করিলেন না । তিনি জীবিত থাকিতেই তাহারা যুদ্ধ