পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/২১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

* অহল্যাবাই । ROS) শ্বশুরের এমন কাতর অনুরোধ অহল্যার মত বধু অবহেলা করিতে পারিলেন না । শ্বশুরকে প্রণাম করিয়া অহল্যা কহিলেন,- “আপনি আমার ইষ্টদেবতা স্বরূপ। জীবন ভরিয়া বৈধব্যের দুঃখই সহিব। পরকালে স্বামীর সঙ্গে কবে মিলন হইবে জানি না। কিন্তু যাই হউক, ইহকালে ও পরকালে যত দুঃখই কপালে থাক, আপনাদিগকে কখনো অবহেলা করিব না । স্বামীসেবায় বঞ্চিত হইলাম বটে, কিন্তু আপনার ও শ্বশ্রাদেবীর সেবায় স্বামী-সেবায় বঞ্চিত বৈধব্য-জীবন সার্থক করিব।” অহল্যা অনুমীরণের সংকল্প ত্যাগ করিলেন। শ্বশুরও র্তাহার কথা রাখিলেন; অহল্যা তাহার রাজসংসারের কত্রী হইলেন। রাজ্যশাসনেও অহল্যাকে তিনি খণ্ডুর স্থানে বসাইলেন। রাজ্যের উত্তরাধিকারী বয়স্ক যোগ্য পুত্রকে রাজারা যেমন রাজ্যশাসনের সহযোগী করিয়া থাকেন, মলহরীরাও অহল্যাকে সেইরূপ আপনার শাসনকার্য্যের সহযোগিনী করিলেন । রাজ্যের আয়-ব্যয়ের ব্যবস্থা এবং আভ্যন্তরিক শাসন ও শৃঙ্খলারক্ষার অনেক ভার তিনি অহল্যার হাতে দিলেন । অহল্যা এত দক্ষতার সঙ্গে এই সমস্ত কার্য্য নির্বাহ করেন, যে, অহল্যার রাজনীতিকৌশল ও রাজ্যশাসন-শক্তির উপর মলহরীরাও এর সম্পূর্ণ বিশ্বাস জন্মিল। পানীপথের যুদ্ধে যাইবার সময় অহল্যার উপরেই তিনি রাজ্যের সম্পূর্ণ ভার দিয়া যান। ফিরিয়া আসিয়া তিনি দেখিলেন, “ এমন দুঃসময়েও অহল্যা ষোমন ভাবে রাজ্যের 温 ?)8