পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/২১৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

Tae আর্য্য-নারী । শাসন ও শৃঙ্খলারক্ষা করিয়াছেন, তিনি নিজেও তেমন পারিতেন কি না সন্দেহ। অহল্যার জন্য, তিনি বস্তুতঃই খণ্ডেরাওয়ের অভাব অনুভব করিতে পারিতেন না । ইহার পর ৪৫ বৎসর মলহরীরাও জীবিত ছিলেন। অহল্যার উপদেশ ও পরামর্শ ব্যতীত তিনি আর কোন কার্য্যই করিতেন না । মলহর কিছু দুৰ্দান্ত প্রকৃতির লোক ছিলেন। কিন্তু অহল্যার প্রতি তাহার এতদূর শ্রদ্ধা ছিল যে, ক্রোধ বা প্রতিহিংসার বশে কোন গুরুতর অন্যায় কার্য্যে তিনি প্রবৃত্ত হইলে, অহল্যা বলিবামাত্র তিনি ক্ষান্ত হইতেন । মলহারের জীবনের শেষভাগে রাজ্যের আভ্যন্তরিক শাসনের সম্পূর্ণ কর্তৃত্ব অহল্যার হাতেই একরূপ ছিল । ( ܘ )

  • ১৭৬৫ খৃষ্টাব্দে মলহররাও হােলকারের মৃত্যু হইল। অহল্যার পুত্র মালেরাও পিতামহের সিংহাসনের অধিকারী হইলেন। মালেরাও যার-পর-নাই উচ্ছঙ্খল প্রকৃতির যুবক ছিলেন। তঁহার উচ্ছঙ্খলতা ও দুশ্চরিত্রত এত বেসি ছিল যে, সে সব কথা শুনিলে তাঁহাকে কখনো প্রকৃতিস্থ মানুষ বলিয়া মনে করা যায় না । ইহার উপর আবার অত্যন্ত সুরাপানে

অভ্যন্ত হওয়ায় তাহার হিতাহিত জ্ঞান একেবারেই ছিল না । মদ খাইয়া উচ্চ কর্ম্মচারীদিগকে তিনি বেত মারিতেন । আত্মীয় ও গুরুজন কেহ উপদেশ দিতে গেলে চাকর দিয়া