পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/২৩৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

অহল্যাবাই । RRA স্বত্ব রক্ষা করিয়া কতকগুলি অতি সুন্দর নিয়ম প্রচলিত করিলেন । নিয়মিত রাজস্ব আদায় হইয়া তাহার রাজকোষে অর্থ আসুক না। আসুক, প্রজাদের উপর কোনরূপ উৎপীড়ন না হয়, প্রজারা সুখে থাকে, প্রজারা ধনে-লক্ষনীতে দিন দিন উন্নত হয়, এই দিকে দৃষ্টি তাহার অনেক বেসি ছিল। রাজস্ব আদায়ের জন্য কোন কর্ম্মচারী প্রজাপীড়ন করায় তিনি তঁাহাকে লিখিয়া পাঠান,-“আপনি রাজস্ব আদায় করিতে পারুন না পারুন, প্রজারা আপনার শাসনাধীনে সুখে আছে জানিতে পারিলে আমি বেসি সুখী হইব।” 霞 প্রজার প্রতি কর্ত্তব্য পালনে তাহার। দয়া, ন্যায় বুদ্ধি ও ধর্ম্মের দিকে দৃষ্টি যে কত প্রবল ছিল তাহ নিম্নলিখিত কয়েকটি ঘটনা হইতে সকলে বুঝিতে পরিবেন। " একবার কোন নিঃসন্তান ধনী বণিকের মৃত্যু হইলে, তুকেজি তাহার সম্পত্তি রাজসরকারে আনিতে চাহিলেন । এইরূপ কার্য্য যে তখন রাজাদের মধ্যে একেবারে অপ্রচলিত ছিল তাহা নয়। বণিকের স্ত্রী অহল্যার নিকট আসিয়া স্বামীর সম্পত্তির অধিকার প্রার্থনা করিলেন । বণিকের স্ত্রীর প্রার্থনা অন্যায় নয় । তুকোজির কার্য প্রচলিত প্রথা অনুসারে অসঙ্গত না হইলেও শাস্ত্রবিহিত রাজধর্ম্ম অনুসারে অন্যায়। এইরূপ বিচার করিয়া অহল্যা তুকোজিকে নিরস্ত হইতে আদেশ করিলেন। আর একটি ধনী বণিক নিঃসন্তান অবস্থায় মরিলে, বণিকের