পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/২৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

गौरवाहे । RBD রাওসাহেব রাখিয়াছিলেন। নানা সাহেব মনুকে বড় ভালবাসিতেন এবং সর্বদা তাহাকে লইয়া খেলা করিতেন। মনুও নানার বিশেষ অনুগত হইয়া উঠিলেন। তিনি নানার সঙ্গে ঘোড়ায় চড়িয়া বেড়াইতেন ; তরোয়াল খেলিতেন ; ঘুড়ি উড়াইতেন। আবার সঙ্গিনীদের মধ্যে যখন থাকিতেন, তখন নিজে রাণী সাজিয়া তাহাদিগকে সখী বা দাসী সাজাইয়া “রাজত্বের খেলা।” করিতেন । এইরূপে মনুর শৈশব কাটিল। আট বৎসর বয়সে ঝান্সীর রাজা গঙ্গাধররাও এর সঙ্গে মনুর বিবাহ হইল। মনুর অসঙ্কোচ নির্ভীকতা এত বেসি ছিল যে, বিবাহে যখন বরের কাপড়ের সঙ্গে, তার কাপড়ের গ্রন্থি বাঁধা হয়, তখন তিনি পুরোহিতকে বলিয়া ফেলিলেন,-“খুব শক্ত করিয়া বঁধিবেন ; গিঠ যেন খুলিয়া যায় না।” বিবাহের বধুরূপে মনু যখন ঝান্সীতে আসিলেন, সকলে তঁার সৌন্দুর্য্যে মুগ্ধ হইয়া ভঁাহাকে “লক্ষমী’ নাম দিল। সেই অবধি মনু নাম উঠিয়া গেল, তিনি লক্ষনীবাই নামে পরিচিত হইলেন। লক্ষনীবাই এর দ্বিপ্নতাও বান্সীর রাজার অধীনে সর্দারের পদ পাইয়া ঝাব্দীতে আসিয়া রহিলেন। বিবাহের ৭৮ বৎসর পরে লক্ষীবাইএর একটি পুত্র জন্মিল। লক্ষনী গঙ্গাধরের দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রী এবং এই পুত্রই তাহার প্রথম সন্তান ও উত্তরাধিকারী। পরিণত বয়সে প্রথম পুত্র সন্তান লাভ করিয়া গঙ্গাধর যার-পর-নাই আনন্দিত হইলেন । কিন্তু