পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/২৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

আর্য্য-নারী । আত্মসমৰ্পণ করেন, তবে ইংরেজ ভঁাহাকে ক্ষমা করিবেন। এরূপ কার্য্য রাণী নিরাপদ ও সম্মানজনক মনে করিলেন না । তিনি নিরুপায় হইয়া যুদ্ধের আয়োজন করিলেন। রাণীর মাত্র এগার হাজার সৈন্য ছিল। অল্প সময়ের মধ্যে যতদূর সম্ভব, শৃঙ্খলার ব্যবস্থা করিয়া রাণী নিজে তাঁহাদের পরিচালনার ভার গ্রহণ করিলেন। ঝানসীনগর দৃঢ় প্রাচীরে বেষ্টিত ছিল। এই প্রাচীরে যেখানে যেরূপ প্রয়োজন, তোপ ও সৈন্যসংস্থান করিয়া রাণী নগররক্ষার বন্দোবস্ত করিলেন । ১৮৫৮ সালের মাৰ্চমাসের শেষ ভাগে সার হিউরোজ বানসী। অবরোধ করিলেন। অতুল বিক্রমে ১০/১১ দিন পর্য্যন্ত রাণী কানসী রক্ষা করিলেন। এই সময় দিবারাত্রিতে ঠহার। বিশ্রাম किबा बी । পুরুষবেশে ঘোড়ায় চড়িয়া রাণী সর্বদা গোলন্দাজ ও সিপাহীদের কাছে কাছে ঘুরিয়া তাহদের কার্য্য পরিদর্শন করিতেন। যেখানে যখনই যে অভাব হুইত, নিজে থাকিয়া সে অভাব পূর্ণ করিতেন। ক্লান্ত সৈন্যদিগকে উৎসাহ বাক্যে সাহস দিতেন। প্রাচীর কোন স্থান বিপক্ষের গোলায় ভাঙ্গিলে নিজে দাড়াইয়া মিত্রীদের দ্বারায় তাহা সংস্কার করাইতেন । নগরে যাহারা আশ্রয় লইয়াছিল, তাহদের আশ্রয় স্থান ও আহারের বন্দোবন্ত করিতেন । রাণীর বীরত্বে, শক্তিতে, অক্লান্ত পরিশ্রমে ও অদম্য উৎসাহে কলকবালিকারা পর্য্যন্ত উৎসাহিত হইয়া উঠিল। ইহারা