পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/৩০৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

& 8 ख्यां-बाौ । এই ঘটনার অল্প পরেই জগৎশেঠ, মহারাজা কৃষ্ণচন্দ্র, রাজা রাজবল্লভ প্রভৃতি বাঙ্গালার প্রধান কয়েকজন রাজকর্ম্মচারী ও জমিদার, সিরাজকে পদচ্যুত করিয়া তাহার স্থানে সিরাজের সেনাপতি মীরজাফরকে নবাব করিবার জন্য এক ষড়যন্ত্র করেন । সকল দেশেই রাজার নিম্নে জমিদার ও প্রধান রাজকর্ম্মচারীদের স্থান। ব্যক্তিগত বা জাতীয় স্বার্থ রক্ষার জন্য এক রাজাকে পদচ্যুত করিয়া অন্য রাজাকে সিংহাসনে বসাইবার জন্য ইহাদের সমবেত চেষ্টা, ন্যায় কি অন্যায় যাহাই হউক, রাজায় রাজায় যুদ্ধের ন্যায়। এরূপ ঘটনা পৃথিবীর ইতিহাসে অনেক ঘটিয়াছে ও ঘটিয়া থাকে। ইতিপূর্বে এই বাঙ্গালাতেই জমিদার গণের চেষ্টায় উচ্ছঙ্খল ও ইন্দ্রিয়পরায়ণ নবাব সরুফরাজ খাঁ পদচ্যুত হন এবং আলিবর্দী সিংহাসনলাভ করেন। এবারও সিরাজকে পদচ্যুত করিয়া ভঁাহারা মীরজাফরকে সিংহাসন দিতে চান । কিন্তু সেবারে আত্মশক্তির উপর নির্ভর করিয়া কার্য্য করিয়াছিলেন ; এবারে ইহারা ইংরেজের সহায়তা চাহিলেন । ইংরেজ তখন দেশের রাজা নন ; তখন বিদেশী বণিক মাত্র । বণিক রূপে আসিয়া দেশের মধ্যে ইতিমধ্যেই তঁাহারা যথেষ্ট अद्धिक প্রতিষ্ঠা করিয়াছেন । এই কার্য্যে সেই ইংরেজের সহায়তা গ্রহণ করিলে যে ইংরেজের শক্তিই দেশের মধ্যে প্রধান হইয়া উঠিবে, ইংরেজের শক্তির নিকট ক্রমে তঁাহাদিগকে যে অবনত এহইতে হইবে ইহা তঁহারা বুঝিলেন না । কিন্তু স্বার্থের মোহে বা বুদ্ধির দোষে দেশের পুরুষনেতাগণ