পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

Oyo আর্য্য-নারী । বৃদ্ধও আপনার ভুল বুঝিল, আর দ্বিধা না করিয়া কন্যা লইয়া চিতোরে গেল। অরিসিংহ এমন বীর্য্যবতী পত্নী পাইয়া আপনাকে ধন্য মনে করিলেন । এই কৃষকবালার গর্ভে আরিসিংহের জ্যেষ্ঠ পুত্র হামিরের জন্ম হয়। যখন আলাউদিনের হস্তে চিতোর ধবংস হয়, তখন হামিরের বয়স মাত্র বারবৎসর ; তখন তিনি মাতার সঙ্গে মাতামহের গৃহে ছিলেন। ( R ) এমন বীর্য্যবতী মাতার পুত্র হামির কখনো হীনবীর্য হইতে পারেন না । হামিরই কালে চিতোর উদ্ধার করিয়া আবার চিতোরের রাণাবংশ প্রতিষ্ঠা করেন। যে পার্বত্য প্রদেশে হামিরের মাতামহের গৃহ ছিল, তাহার নাম কৈলবারা । রাজপুতানার রাজাদের অধীনস্থ ভূস্বামীদিগকে সর্দার বলিত। রাজপুতানার পার্বত্য প্রদেশে ভীল নামে কৃষ্ণবর্ণ একরূপ অনার্য্যজাতি বাস করিত ৷ ভীলেরা বিশেয সাহসী ও রণকৌশলী বলিয়া বিখ্যাত ছিল ৷ ভীল সর্দারের চিরদিন রাজপুত রাজাদের নিতান্ত বিশ্বস্ত ও অনুগত প্রজা ছিলেন । যুদ্ধে ও বিপদে চিরদিন রাজপুত রাজারা তঁহাদের সহায়তা পাইতেন । এই কৈলবারা প্রদেশে অনেক ভীল সর্দারের বাস ছিল। রাণার বংশধর বলিয়া এই সব ভৗলসর্দারের হামিরের বিশেষ অনুগত হইয়া উঠিল। পাঠিকাবাগের স্মরণ থাকিতে পারে, আলাউদিনের সঙ্গে