পাতা:আর্য্য-নারী দ্বিতীয় ভাগ.djvu/৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

अरी-नांद्री । ‘রাজপুত মহিলারা অনেকেই যুদ্ধ করিতেন এবং সে জন্য বাল্যাবধি ব্যায়াম ক্রীড়া, অস্ত্রচালনা ও অশ্বারোহণ প্রভৃতি শিক্ষা করিতেন। তারাবাই বিশেষ যত্ব সহকারে এই সমস্ত সামরিক বিদ্যায় বিশেষ শক্তি ও নিপুণতা লাভ করিলেন। কিন্তু হাজার হইলেও তারাবাই রমণী ; রাওশুরতান নিসংগম্বল। কোন যোগ্য রাজপুতবীরের সহায়তা ব্যতীত টোডা • উদ্ধারের সম্ভবনা নাই। এদিকে রূপে ও শৌর্য্যে সাক্ষাৎ সিংহবাহিনী, অসুরিনাশিনী, দুৰ্গারূপিণী তারাবাইকে বিবাহ করিতে রাজপুত বীরমাত্রই উৎসুক হইবেন। রাওশুরতান ঘোষণা করিলেন, যে বীর টোড উদ্ধার করিতে পারিবেন, তারাবাই তাহাকেই পতিত্বে বরণ করিবেন । একদিন তারাবাই অস্ত্রশস্ত্রে সুসজ্জিত হইয়া অশ্বারোহণে কোথায় যাইতেছিলেন, এমন সময় রাণার কনিষ্ঠপুত্র জয়মল্ল র্তাহাকে দেখিয়া মুগ্ধ হইলেন। কিন্তু রাওশুরতানের পণ তিনি জানিতেন । সেই পণ রক্ষা করিতে না পারিলে এই রূপবতী রণরঙ্গিণীকে, রাজপুত বীরের যোগ্য বীরাঙ্গনাকে লাভ করিবার উপায় নাই। জয়মল্ল রাওশুরতানকে নিজ বাসনা জানাইয়া সৈন্য সহ টোড উদ্ধারে গমন করিলেন। পরাস্ত হইয়া ফিরিয়া নিল্লািক্ত জয়মল্ল বলপূর্বক তারাবাইকৈ হরণ করিবার চেষ্টা করেন। তিনি রাণার পুত্র। রাওশুরতান তাহার পিতৃরাজ্যে আশ্রিত। সুতরাং এ সাহস তাহার হইবে না কেন ? কিন্তু আত্মসম্মান ও কুলগৌরব রক্ষার জন্য - রাওশুরতান