পাতা:আলোকিত সমাবেশ.pdf/১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

গোত্রান্তর অনেককাল কলতলায় জল তুলেছে সকাল বিকেল, গিন্নী তুপুর পাশ ফিরে শুলে তুষ্ট, হাতের টানে হতে চেয়েছে খিলখিলে ফোয়ারা, শেষ উনুনের ক্লাস্ত কয়লাগুলোর মাতাল চোখে জল ঢেলেছে অঢেল । তারপর দিনকালের উপেক্ষায় ক্ষয়ে ক্ষয়ে পেশাদার বেকার আমরা ডালহৌসির ডালে ডালে দারেয়ান ছপুরগুলোকে যখন ঢিল ছুড়েছি, সেই ফাকে এই বৃদ্ধ বেকার মরচে মলিন ক্লিষ্ট কাঠামোটা টেনে টেনে কামারশালায় ‘কি উ’ লাগিয়ে শানানো শলা চfলানে? এ ফোড় ও ফোড় বুক পিঠ নিয়ে তিনতাল মাটি ঘাড়ে এসে একদিন কবর ঠেলে রুখে দাড়ালো র; স্নাঘরের রকে । হঠাৎ এক ভোর পাচটায় দেখি যে জল তুলতো, আগুন নেভাতো সে আগুনে আঁাচ নাচিয়ে তুলছে লতানে নীল লেলিহ পাপড়িতে, সঙ্গে সঙ্গতকার হাভাতে এক হাত-পাখা, আর কোন সতেরোয় সিস্থর পুড়িয়ে ফিরে আসা এ বাড়ির যমের অরুচি । অমূল্য ভূষণ পালের কবিতা