পাতা:আলোচনা - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জগৎ সত্য । \55 নিকটে একখান বই আনিয়া দেওয়া হয়—তবে সে বইয়ের প্রত্যেক আঁচড় আমার চক্ষে পড়ে, প্রত্যেক বর্ণ আলাদা আলাদা করিয়া দেখিতে পাই ও সমস্তটা অনর্থক ছেলেখেলা মনে করি। কিন্তু যখন পড়িতে শিখি, তখন আর অক্ষর দেখিতে পাই না। তখন বস্তুতঃ দুইটা আমার নিকটে অদৃশ্য হইয় যায়, কিন্তু তখনি বইট যথার্থতঃ আমার নিকটে বিরাজ করিতে থাকে। তখন আমি যাহা দেখি তাই দেখিতে পাই না, আর একটা দেখিতে পাই। তখন আমি বস্তুতঃ দেখিলাম, গ-য়ে আকার ছ, (গাছ) কিন্তু তাই ন দেখিয় দেখিলাম একটা ডালপালা-বিশিষ্ট্র উদ্ভিদ পদার্থ। কোথায় একটা কালো আঁচড় আর কোথায় একটা বৃহৎ বৃক্ষ ! কিন্তু যতক্ষণ পর্যান্ত না আমরা বুঝিয়া পড়িতে পারি ততক্ষণপর্যন্ত ঐ আঁচড়গুলা কি সমস্তই মিথ্য নহে!