পাতা:আলোচনা - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


** মানুষের সৰ্ব্বোৎকৃষ্ট ধৰ্ম্ম পরের জন্য আত্মোৎসর্গ। কর । জগতের ধৰ্ম্ম আমাদিগকে আগে হইতেই পরের জন্য উংস্থ& করিয়া রাখিয়াছে, সে বিষয়ে আমরা জগতের জড়াদপি জড়ের সমতুল্য। কিন্তু আমরা যখন স্বেচ্ছায় সচেতনে সেই মহাধৰ্ম্মের অনুগমন করি তখনই আমাদের মহত্ব, তখনই আমরা জড়ের অপেক্ষা শ্রেষ্ঠ। কেবল তাহাই নয়, তখনই আমরা মহৎ সুখ লাভ করি । তখনই আমরা দেখিতে পাই যে, স্বার্থপরতায় সমস্ত জগৎকে এক পর্শ্বে ঠেলিয় তাহার স্থানে অতি ক্ষুদ্র আপনাকে প্রতিষ্ঠিত করিতে চাই । কিন্তু পারিব কেন ? অহৰ্নিশি অশান্তি, অস্থখ, হৃদয় ক্লান্ত হইয় পড়ে, কিছুতেই তাহার আরাম يديد" থাকে না। যতই সে উপার্জন করিতে থাকে যতই সে সঞ্চয় করিতে থাকে, ততই ত স্থার ভার বৃদ্ধি হইতে থাকে মাত্র । কিন্তু যখনি আপনাকে