পাতা:ইঞ্জিল মুকদ্দস্‌.djvu/১২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ১১৫ । ২৭ বাব । পীলাভের হাতে মসীছের সুপদ হইবার বয়ন । তাবাদে ফজর আসি হইল যখনে ৷ সরদার কাহেন আর বুজরগগণে ॥ কতল করিয়া জান লইতে ইসার । মসলহৎ করিলেক খেলাফে তাহার ॥ তার বাদে তারে সভে বান্ধিয়া লইয়া। পীলাতের হাতে দিল সুপর্দ করিয়া। এহুদ নামওয়ালা শাগরেদের ফাসি দিয়া মরিবার বয়ান । এহুদ বেইমান, যেবা রিসবত খাইয়া। দুষ্মনের হাতে দিল ইসারে ধরিয়া ॥ আখেরেতে শুনিল সে মসীছের পর । কতলের ফতোয় যে হইল জাহের ॥ জানিতে পারিয়া ইহা পশেমান হৈয়া । কাছেন ও বুজরগদের কাছে গিয়া৷ সেই ত্ৰিশ টাকা সে যে করিয়া ফেরত । তাছাদের কাছে করে আরজ এমত ॥ বেগুন যে শকশ তারে দুৰ্ম্মনের হাতে । ধরায়া দেওয়াতে গুনা করিন্থ তাহাতে ॥ শুনিয়া কহিল তারা মোদের কি হবে । আপনিই তুমি তাহা বুঝিয়া দেখিবে ॥ বাদে সে আই টাকা হএকলে ফেলিয়া । সেথ হৈতে চল্যে গেল রওনা হইয়া। তার বাদে কমবক্ত মএদানে যাইয়া । লইল আপন জান ফঁাসি লটকাইয়৷ সরদার কাহেনগণ কহিল আখের । এ টাকা লইয়া মোরা কি করিব ফের ॥ হএকলের খাজানাতে রাখা ভাল নয় । সবব খুনের দাম এই টাকা হয়। বাদে তারা সভে মিল গুপ্তগু করিয়া। বিদেশী যতেক লোক সেথা যায় মরিয়া ॥ ছেরেফ তাদের কৰ্বর গাহের কারণ । কুমারের থেত এক কিনিল তখন ॥ সেই থেত আজ তক সে দেশেতে রহে । বেবাকে খুনের থেত