পাতা:ইঞ্জিল মুকদ্দস্‌.djvu/১২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ১১৭ ] হুজুরে। এ সকল তারে বেস মালুম আছিল । ইহার সববে এই সওয়াল পুছিল ৷ ইসার খুনের শরিক না হইতে হাকিমের কবিলার শল্ল দেওন । পীলাত যে ওত্তে ফের মনসদে বসিল । তাহার কবিলা তারে কহিয়া ভেজিল ॥ সে অামি সাদিক আছে, তাহার উপরে । করিও না কিছু তুমি মানা দি তোমারে। তাহার বাবতে আমি আজ থোয়ীবেতে । বড় তস্দি পাইয়াছি আপন দেলেতে। সরদার কাহেন আর বুজরগগণে । ইহা শুনে এই শল্লা কর্যে মনে মনে ॥ বারদ্বারে মেঙ্গে লিতে মারিতে ইসারে । উস্কাইয়া দিল তবে লোক সবাকারে। হাকিম তাদের তরে সওয়াল করিল । আভি তোমাদের মরজি কি ত৷ মোরে বল ॥ দুই শকৃশ আছে এবে আমাদের হাতে । ইহার কাহারে হবে খালাশ করিতে ॥ জওয়াব করিয়া তারা কহিল তাহারে । বারবারে ছেড়ে দেও আমাদের তরে ৷ তাঁহাতে লীলাত এই সওয়াল করিল। মসী নামে ইসারে কি করি তবে বল ॥ সভেই তখন এই করিল বয়ান । সলিবে কতল করি লহ তার জান ৷ হাকিম কহিল বল কিশের কারণ । সে কি কোন বন্দী কাম করেছে কখন ॥ লেকিন চিল্লায়ে তার করিল বয়ান । সলিবে কতল করি লহু তার জান ॥ তাহতে ফেকেরে তার ফাএদা না হইল । বলকে তাহাতে আরো ফসাদ বাদিল ॥ ইহা দেখে পানি লৈয়া পীলাত আপনি । লোকদের সামনে হাত ধুইল তখনি। হাত ধুয়ে লোকগণে কহিল আবার । এ শকশ সাদিক আছে বিচারে আমার ॥ ইহার খুনেতে আমি হই বেতকৃসির । তোমরা বেবীকে বুঝ