পাতা:ইঞ্জিল মুকদ্দস্‌.djvu/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


r [ ৩৭ ] মাদেরে যেই শকৃশ কবুল করিবে । সে মোরে কবুল করে এ বাৎ জানিবে। আর দেখ আমারে কবুল করে যেই । ভেজনেওয়ালাকে মোর মেনে থাকে সেই। যে করে নবির নামে নবিরে কবুল । সেই শকশ তরে মিলে নবির যে ফল। সাদিকের নামে যে সাদিকে কবুলায় । সাদিকের ফল কিন্তু সেই শকশ পায়। এই ছোটদের বিচে শাগরেদ বলিয়া । সচ সচ আমি তুঝে দিতেছি কহিয়া। পেয়ালা ভর ঠাণ্ড পানি তাহারে পিলায় । সে শকশ আপন ফল কভি না হারায় ॥ ১১ বাব | এহিয়ার শাগরেদগণকে ইসার নজদিকে ভেজিবার বয়ান। এছাই ছুরতে বারো শাগরেদের পরে। আপন হুকুম ইস খতম যে করে। নসিহং দিতে আর ওয়াজ করিতে । রওনা হইল ইসা যেই জাগা হৈতে। কয়েদ থানার বিচে থাকিয়া এহিয়া । মসীহের এ কামের খবর পাইয়া। আপনার দুই জন শাগরেদ ভেজিল । মসীহের কাছে এই সওয়াল করিল। সেই আনেওয়ালা শকৃশ তুমি কি আখের । কিম্বা এন্তেজারি মোরা করিব অন্যের ॥ জওয়াব করিয়া ইসা কহিল তখন । তোমরা দোজনা যাও ফিরিয়া এখন ৷ শুনিবারে যাহা আর দেখিবারে পাও । এহিয়ার কাছে গিয়া সে সব জানাও। দেখিতে পাইছে আন্ধা লেঙ্গড়া চলিছে । কোঢ়িরা হুইছে পাক, বহেড়া শুনিছে। মুরদারা উঠিছে আর গরিবের কাছে । খুশ থবরির কথা ওয়াজ হৈতেছে। ঠোক্করের হেতু যার নাহি হুই মুই । খয়ের জানিবে দেখ মুবারক সেই ৷