পাতা:ইঞ্জিল মুকদ্দস্‌.djvu/৯৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


[ ઝિર ] লেন ইসা ই শুনিতে তা পাই । তোমরা কি এই বাৎ কভি পড় নাই। ‘লাড়কা আর দুধ পিনেওয়ালাগণের । মারফতে জাহের কর বাং তারিফের ।” বাদে তিনি সেই সব লোকেরে ছাড়িয়া । শহরের বাহিরেতে নিকালিয়া গিয়া ॥ বৈথনিয়া নামে এক বন্তি যে আছিল । রাৎভর সেই থানে গিয়া গুজারিল ৷ ফজর হইলে ইসা চলিল বাহিরে । লেকিন সে ওক্তে ভুখ লাগিল তাহারে৷ রাস্তার কেনারে যে ডুমুর গাছ ছিল । সেথা গিয়া পান্ত বিনা কিছু না পাইল ॥ কহিলেন ইস৷ সেই গাছেরে তাহাতে । আভি ছে কোনই ফল না হউক তোমাতে। মসীহ কহিলে ইহা এমত হইল । সে ওক্তে ডুমুর গাছ শুখাইয়া গেল। শাগরেদেরা সেথা থেকে এ সব দেখিয়া । কহিল তাহারা বড় তাজুৰ মানিয়া। আহা, এ ডুমুর গাছ কেমন করিয়া । দেখিতে দেখিতে জলদি গেল শুখাইয়া। তাহাতে কহিলা ইসা তাহদের তরে। সচ সচ কহিতেছি আমি তোমাদেরে। বেশক ইমান যদি আনহ সবায় । তা হৈলে ডুমুরগাছ বল্যে কথা নয়। লেকিন হুটিয়া তুমি পড় সমুন্দরে । এ বাৎ কহিলে এই পাহাড়ের তরে ॥ তা হৈলে ত সেই বাৎ পুরা হৈয়া যাবে। আর এক বাৎ বলি বুঝিতে পরিবে। দোয়া কর্যে ইমানের সাথে যা মাঙ্গিবে। তোমাদের তরে দেখ তাহাই মিলিবে ॥ জওয়াবের মারফতে সরদার কাহেনদের মুখ বন্ধ করিবার বয়ান । এবাদৎ থানা বিচে যাইয়া পরেতে । সেই থানে নসিহৎ দিবার বথতে ॥ সরদার ইমাম আর বুজ.গর এসে ।