পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/১৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
প্ৰথম সর্গ।

জগতের হাসি কান্না, সৌন্দৰ্য্যের হাট,
প্ৰাণের এ আকুলতা, ভালবাসাবাসি,
ক্ষণেকের তরে শুধু। আত্মা অবিনাশী
অক্ষয়, অনন্ত, নিত্য। কত জন্মে জন্মে
মিশিতেছি পুনঃ পুনঃ তোমাতে আমাতে।
আজ যদি উভয়ের এ নশ্বর দেহ,
দৈবের বিধানে হেথা হয় অবসান,
প্ৰাণের আকুল প্ৰেম, বাসনার জ্বালা,
হইবে না কভু লয়। উভয়ে আমরা
আবার মিলিব পুনঃ পতি পত্নীরূপে।
ইহ জীবনের এই শেষ দিনে আজ,
ভীষণ আবৰ্ত্তময় কালের গহ্বর,
দাঁড়াইয়া দুইজনে সম্মুখে তাহার,
নিমেষের তরে এস ভুলিয়া সকলি,
অনন্ত মঙ্গলময় মহিমা বিভুর,
গাহিতে গাহিতে হই প্ৰস্তুত উভয়ে,
লইতে সংসার হ’তে অনন্ত বিদায়,
নব দেশে নব বেশে যেতে পুনরায়”।
 কহিলেন ইন্দু “ঈশ্বরে বিশ্বাস তব,
আমার তোমাতে শুধু। তোমাকে ছাড়িয়া
তাঁহাকে ডাকিতে শক্তি নাহিক যে মম।
কত জন্ম তপস্যায় পেয়েছি তোমায়,