পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৩৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
২২
ইন্দুমতী।

ঈষৎ করিয়া নত শিরঃ আবরণ,
ঈষৎ বসিয়া সরি পীড়িতের পাশে,
বীণার ঝঙ্কারে বৈদ্যে কহিল রাণীমা—
“হয় অনুমান এই প্ৰহরের মধ্যে
অবস্থা হয়েছে মন্দ-হইয়াছি ভীত।”
নিকটে আসিয়া বৈদ্য পরীক্ষা করিয়া
বিস্ময়ে মানিলা সত্য এই অনুমান।
জীবন প্রবাহ ধীরে হয় মন্দীভুত,
অবস্থা হতেছে অতি শঙ্কার কারণ।৷
কিছুক্ষণ চিন্তা করি কহিল তখন—
“মার অনুমান সত্য। দেব ইচ্ছা সব।
দিতেছি ঔষধ” বলি বৈদ্য গেল উঠি।
 উথলি উঠিল অশ্রু রাণীমা নয়নে।
পঞ্জর ভেদিয়া তাঁর একটী নিশ্বাস,
অনন্তে মিলিয়া গেল নীরবে তখন।
বিংশতি দিবস আজ, দিবস যামিনী
অনিদ্রায় অৰ্দ্ধাহারে করি প্ৰাণপণ
ইন্দুর জীবন হেতু করিছেন সেবা।
স্বহস্তে ঔষধ জল শীতল প্ৰলেপ
দিতেছেন তিনি, যাঁর এত দাস দাসী,
আত্মীয় স্বজন ব্যস্ত রয়েছে সতত,
পালন করিতে তাঁর সামান্য আদেশ।