পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৩৪
ইন্দুমতী।

দোলে গলে উপবীত। পূজার কুসুম,
দেবের চরণে দিতে মনে হয় যেন,
দিতেছেন পতি পদে। মনে হয় তাঁর,
দেব পূজা ছলে তিনি পূজিছেন পতি।
রাণীমারে বলিলেন এই সব কথা।
রাণীমা চিবুক ধরি কহিলেন তাঁরে,
"নারীর দেবতা পতি, সেবিলে পতিরে,
ঈশ্বর পরম তুষ্ট সেবায় সতীর।
পতি আর দেব পূজা কভু ভিন্ন নয়।
তোমার হতেছে মা গো! দেবী পূজা ঠিক।”
 এ দিকে রাণীমা যত্নে লাগিল হইতে,
ইন্দুর পতির তরে বহু অন্বেষণ।
নদীর উভয় কূলে ছিল যত গ্ৰাম,
ছুটিল তথায় চর করিতে সন্ধান।
মিলিল সংবাদ বহু অন্বেষণ পরে,
একদা নিশীথে এক দুৰ্যোগের পর,
জনৈক ধীবর মৎস্য ধরিবারে গিয়া,
দেখিল নদীর মাঝে সিকতা উপর,
শায়িত রয়েছে এক গৌরাঙ্গ যুবক,
অৰ্দ্ধনগ্ন দেহ, কটিতে জড়িত বাস,