পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।
৬৮
ইন্দুমতী।

  তাই বলি খাও দাও কর সুখভোগ
  যত দিন দেহ তব রহিবে নীরোগ।
ইন্দু। উঃ কি ভয়ানক! হায় বুঝিবে অচিরে
  মদিরা সেবনে হয় কিবা পরিণাম।
  পাইলে পাপের দণ্ড ঘুচিবে স্বপন,
  জগতে যেমন ইহা সকলের ঘুচে।
  ফুটিবে তখন চক্ষু, চিনিবে ঈশ্বর—
  দাঁড়াও ওখানে। নাহি হও অগ্রসর।
নগেন্দ্র। কুসুম কোমল প্রাণে কঠিনতা এত?
   হঠাৎ খুলিল দ্বার, আসিল ছুটিয়া
  ঘরে, নগেন্দ্রের পুত্র শশাঙ্ককুমার।
   সুদূর গগন-প্রান্তে দেখি অকস্মাৎ
  এক খণ্ড কৃষ্ণমেঘ, নিদাঘ তাপিত
  তৃষিত পথিক যথা চাহি তা’র পানে
  কত আশা করে মনে, শশাঙ্কে দেখিয়া,
  উপজিল কত আশা মানসে ইন্দুর।
শশাঙ্ক। পিসিমা পিসিমা! আমি খুঁজেছি তোমারে
  সারা বাড়ীময়—তুমি আসিলে কখন?
নগেন্দ্র। কেন তুই এলি হেথা? দূর হ’রে পাপ।
শশাঙ্ক। বিনা দোষে কেন বাবা কর তিরস্কার?