পাতা:ইন্দুমতী - যতীন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করার সময় সমস্যা ছিল।

৬৯
সপ্তম সৰ্গ।

  নগেন্দ্ৰ মারিয়া লাথি ফেলে দিল দূরে
কিশোরু সন্তানে তা’র। উঠিয়া কুমার,
ধরিয়া ইন্দুর হাত লাগিলা কাঁদিতে।
“পিসিমা আমরা চল ফিরে যাই ঘরে।
কেন বাবা! পিসিমার রোধ তুমি পথ?
ছেড়ে দাও, যাইতেছি আমরা চলিয়া।”
  বসিয়া পড়িল ইন্দু মেঝের উপর;
নগেন্দ্ৰ ধরিতে গেল কুমারে তাহার।
বসিয়া তখন ইন্দু যুড়ি দুই করা,
উর্দ্ধে চাহি সকাতরে ডাকিয়া ঈশ্বরে,
ফিরিয়া নগেন্দ্ৰ প্ৰতি বলিল গৰ্জিয়া—
"মেরোনা বাছারে আর। দেহ তীক্ষ ছুরি
নাশিব নিজের প্রাণ ঘুচিবে আপদ৷”
  নগেন্দ্ৰ ছাড়িয়া পুত্রে দাঁড়াইল দূরে।
বালক উঠিয়া তবে আপাদ মস্তক
দেখিল পিতার তা’র। বারেক চাহিয়া
রুদ্যমান ইন্দু প্ৰতি, দেখিল আবার
উজ্জ্বল আলোক-দীপ্ত কক্ষ চারিধার।
অমনি ছুটয়া গিয়া গৃহের কোণেতে
তুলিয়া লইয়া এক পিস্তল তখন—
আত্মরক্ষা হেতু যাহা সতত নগেন্দ্ৰ

            • ৰাষত লক্ষ রাখিতী তথায়—